আলমডাঙ্গার হারদীতে মা ও দুই ভাইকে পিটিয়ে জখম

 

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গা হারদী গ্রামের মিজান লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে বৃদ্ধা মা ও বড় দুই ভাইকে। গতকাল রোববার দু দফায় মিজান তার চাচাতো ভাই টুনা ও ঝন্টুকে সাথে নিয়ে এ হামলা চালায়। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

জানা গেছে, হারদী গ্রামের সুলতানের ছেলে হামিদুল ইসলামের পারিবারিক একটি পুকুর রয়েছে। পুকুরটি মিজান গোপনে লিজ দেয়ার চেষ্টা করলে অন্য ভাইদের সাথে দ্বন্দ্ব হয় তার। দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন মিজানের চাচা আকবর আলীর ছেলে টুনা ও আজিজুলের ছেলে ঝন্টু। তারা ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে হামিদুলকে রাস্তায় ফেলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হারদী হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ঘটনার পর থানার এসআই জিয়াউর রহমান অভিযুক্ত মিজানের খোঁজে হারদী গ্রামে যান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মিজান, টুনা ও ঝন্টু হামলে পড়ে তাদের বাড়িতে। তারা হামিদুল ও মিজানের বড় ভাই আসাদুলকে উঠোনে ফেলে পিটিয়ে আহত করেন। আসাদুলের একটি হাত ভেঙে যায়। এ সময় ছেলেকে বাঁচাতে ছুটে এলে মা ফাতেমা জোহরাকেও বেদম পেটাতে থাকে হামলাকারীরা। তারও একটি হাত ভেঙে যায়। হামলাকারীরা চলে গেলে প্রতিবেশীরা আহতদের উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *