আলমডাঙ্গার নাগদাহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি

বেগম খালেদা জিয়া এতিমদের টাকা চুরি করে জেলখানায় ঘুমাচ্ছেন
মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর পর আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের ঘরের বাহির হতে দেয়নি। দেশে রাজনীতি বন্ধ করে দিয়েছিলো। আমরা কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করে রাস্তায় নেমেছি, আন্দোলন সংগ্রাম করেছি। জিয়াউর রহমান বন্ধুকের ভয় দেখিয়ে আমাদের দমাতে পারেনি। আমরা ২১ বছর রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিলাম না। আমাদের নেতা-কর্মীদের ওপর মারধোর, জেল-জুলুম, পুলিশের লাঠিচার্জ সবকিছু মিলিয়ে বহু নির্যাতন করেছে। তারপরেও আমাদের দমাতে পারেনি। আমাদের নেতা-কর্মীদের ডাকলে রাস্তায় আসে। কিন্তু আজ বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া এতিমদের টাকা চুরি করে জেলখানায় আর আপনারা ঘরে বসে ঘুমাচ্ছেন। তিনি গতকাল আলমডাঙ্গার নাগদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে জাতীয় সংসদের হুইপ চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের এমপি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন আরও বলেন, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের লোভ দেখিয়ে ভয় দেখিয়ে দলে ভেড়ানো যায় না। তারা বঙ্গবন্ধুর দল আওয়ামী লীগকে প্রাণের চেয়ে বেশি ভালোবাসে। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর পর আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের ঘরের বাহির হতে দেয়নি। দেশে রাজনীতি বন্ধ করে দিয়েছিলো। আমরা কোনোকিছুর তোয়াক্কা না করে রাস্তায় নেমেছি, আন্দোলন সংগ্রাম করেছি। জিয়াউর রহমান বন্ধুকের ভয় দেখিয়ে আমাদের দমাতে পারেনি। আমরা ২১ বছর রাষ্ট ক্ষমতায় ছিলাম না। আমাদের নেতা-কর্মীদের ওপর মারধোর, জেল-জুলুম, পুলিশের লাঠিচার্জ সবকিছু মিলিয়ে বহু নির্যাতন করেছে। তার পরেও আমাদের দমাতে পারেনি। আমাদের নেতা-কর্মীদের ডাকলে রাস্তায় আসে। কিন্তু আজ বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া এতিমদের টাকা চুরি করে জেলখানায় আর তাদের নেতা-কর্মীরা ঘরে বসে ঘুমাচ্ছেন। একজন ব্যক্তিকে রাস্তায় পাওয়া যায়নি, যে রাস্তায় দাঁড়িয়ে বলবে খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই, আবার নিজেদের দেশের বড় রাজনৈতিক দল বলে দাবি করেন। ক্ষমতায় থাকাকালীন তোমরা বিএনপি নেতা-কর্মীরা আমাদের নেতা-কর্মীদের ওপর জুলুম করেছো আমরা তোমাদের নির্যাতন সহ্য করেছি। আজ আমরা ক্ষমতায় এসে তোমাদের ওপর প্রতিশোধ নেইনি কারণ আওয়ামী লীগ কোনদিন প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না। আমরা দেশ ও জনগণের উন্নয়ন চাই। আমরা ক্ষমতায় এসে দেশকে দরিদ্র দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে রুপান্তর করেছি।
খেজুরতলা মাদরাসা মাঠে সভাপতিত্ব করেন নাগদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহবায়ক আলী আশরাফ মন্নু। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খুস্তার জামিল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদুজ্জামান লিটু, অ্যাড. আব্দুল মালেক, প্রচার সম্পাদক শওকত আলী, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আলী রেজা সজল, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, সদস্য নজরুল ইসলাম সোনা, অ্যাড. বিল্লাল হোসেন। আলমডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাদির গনু, সহ-সভাপতি বেলগাছি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম মন্টু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার, সাংগঠনিক সম্পাদক আতিয়ার রহমান, প্রচার সম্পাদক জহুরুল ইসলাম বেলু, আলমডাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু মুসা। উপস্থিত ছিলেন যুবলীগ নেতা জামান, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাহাবুল ইসলাম, সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আশিক ইকবাল স্বপন, আলমডাঙ্গা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালমুন আহম্মেদ ডন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি নয়ন সরকার, আইলহাস ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তোফাজ্জেল হোসেন, সেক্রেটারি জাহিদুল ইসলাম বাদল, নাগদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ, এজাজ ইমতিয়াজ জোয়ার্দ্দার বিপুল, নাগদহ যুবলীগের সভাপতি আবুল হাসনাত মোল্লা প্রমুখ। সম্মেলন শেষে আলী আশরাফ মন্নু সভাপতি, কুদ্দুস আলী মাস্টার সহ-সভাপতি ও হায়াত আলীকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *