আলমডাঙ্গার খাদিমপুরে পরস্ত্রীর ঘরে ঢুকে গ্যাঁড়াকলে ॥ থানায় মামলা

ভালাইপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার খাদিমপুর গ্রামের উজ্জ্বল বিশ্বাস প্রতিবেশী এক সন্তানের জননীর ঘরে ঢুকে গ্যাঁড়াকলে পড়েছে। পরকীয়া প্রেমিকার সাথে বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে গ্রামের মাতবর উভয়কে রাতভর আটকিয়ে রাখলেও সকালে কৌশলে ছেলেকে পালাতে সহায়তা করেছে বলে অভিযোগ করেছে মেয়েটির পরিবার। এই বিষয়ে মেয়েটি আলমডাঙ্গা থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন বলে জানা গেছে।
আলমডাঙ্গার খাদিমপুর গ্রামে গত শনিবার রাত ১১টার দিকে সুযোগ বুঝে দুই সন্তানের জনক ফরা বিশ্বাসের ছেলে উজ্জ্বল বিশ্বাস প্রতিবেশী জাহাঙ্গীর হোসেনের স্ত্রী ছোনিয়া খাতুনের ঘরে প্রবেশ করে। দুজনের ফিসফাসে প্রতিবেশীরা সংগঠিত হয়ে বাইতে থেকে দরজা খুলে দুজনকে হাতেনাতে ধরে। রাতভর বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে আটকিয়ে রেখে সকালে মাতবরেরা মেয়েটিকে উজ্জ্বলের সাথে বিয়ে দেয়ার প্রতিশ্রতিতে পূর্বের স্বামীর নিকট থেকে তালাক করিয়ে নেন। এদিকে মেয়েটি ও তার পরিবার অভিযোগ করেন বলেন, মাতবরেরা কৌশলে উজ্জ্বলকে পালাতে সহায়তা করলো। সবকুল হারিয়ে মেয়েটি আলমডাঙ্গা থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন বলে জানান।
এদিকে গ্রামের কিছু ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই তাদের পরকীয়া প্রেম চলছিলো। অনেকেই ধরার চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়ে ফিরে আসলেও গতরাত্রে আবারও দুজনের এক ঘরে মিলিত হলে হাতেনাতে ধরা পড়ে। শুনছিলাম সকালে বিয়ে হবে, সেই সূত্রে একই ঘরে দুজনকে রাতভর আটকিয়েও রাখে, সকালে মেয়েটিকে পূর্বের স্বামীর নিকট হতে তালাক করিয়ে পিতার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়ায় মেনে নিতে পারছেনা গ্রামের অনেকেই।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *