আমন ধানের লাভজনক মূল্য নির্ধারণে মতবিনিময়সভায় এডিসি মল্লিক সাঈদ মাহবুব খাদ্য নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব অর্জনে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান

স্টাফ রিপোর্টার: খাদ্য নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব অর্জনে কৃষিপণ্যের লাভজনক মূল্য নিশ্চিত করার দাবিতে আমন ধানের লাভজনক মূল্য নির্ধারণে মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে অক্সফাম, গ্রো, কর্মজীবী নারী ও সিএসআর’র সহযোগিতায় পল্লি উন্নয়ন সংস্থা-পাস ও জেলা কৃষি জনমূল্য কমিশন এ সভার আয়োজন করে। জেলা কৃষি জনমূল্য কমিশনেরসহ সভাপতি আবু সুফিয়ান বিল্লালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মল্লিক সাঈদ মাহবুব। তিনি বলেন কৃষি বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উৎপাদনশীল খাত। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে অনাবৃষ্টি, অতিবৃষ্টিসহ বিভিন্ন ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে কৃষি উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। অপরদিকে উৎপাদিত কৃষিপণ্যের বিশেষ করে ধানের লাভজনক মূল্য না থাকায় কৃষকরা ধানচাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে। তাছাড়া পচনশীল পণ্য সংরক্ষণাগার না থাকায় কৃষকরা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। ফলে দেশ খাদ্য নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব   অর্জনে বাধাগ্রস্ত হবে, যা দেশকে স্থায়ী খাদ্য সঙ্কটের দিকে ঠেলে দিতে পারে। এ অবস্থায় প্রতিটি উপজেলায় শুকনো খাদ্যগুদাম ও হিমাগার নির্মাণের প্রয়োজন। এজন্য সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা কৃষি অধিদপ্তরের উপপরিচালক হরিবুলা সরকার। সাংবাদিক জামান আক্তারের উপস্থাপনায় প্রবন্ধ পাঠ করেন সিডিএফ’র প্রকল্প সমন্বয়কারী জেলা কৃষি জনমূল্য কমিশনের সদস্য আসমা হেনা চুমকি। বক্তব্য রাখেন পাস’র নির্বাহী পরিচালক জেলা কৃষি জনমূল্য কমিশনের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন। বক্তব্য রাখেন সিডিএফ সাধারণ সম্পাদক প্রত্যাশার নির্বাহী পরিচালক বিল্লাল হোসেন, সাংবাদিক শাহ আলম সনি, কৃষি জনমূল্য কমিশনের সহসভাপতি নুরুল ইসলাম, লিয়াকত আলী, রিচার্ড রহমান, সজল মিয়া, আমির হোসেন, মিলি ইয়াসমিন, জিসিএ সহসম্পাদক একরামুল হক মুক্তা প্রমুখ। সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন পাস’র পরিচালক কাতব আলী।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *