আন্দুলবাড়িয়ায় কৌশলে দু শিশুর কানের দুল ছিনতাই

আন্দুলবাড়িয়া প্রতিনিধি: সাবধান! প্রতারক চক্র আপনার আশপাশে ঘুরঘুর করছে। সুযোগ পেলেই অভিনব কৌশালে হাতিয়ে নিবে মূল্যবান সামগ্রী। ওরা ছোট্র শিশু, শখের বসে কান ফুটিয়েছে। শিশু মনিদের বায়না মেটাতে মা-বাবা তৈরি করে দিয়েছে সোনার দুল। সহপাঠিদের সাথে আনন্দে ওরা খেলছিলো বাড়ির আঙ্গিনায়। ভদ্রবেশি প্রতারক নিমিষে শিশুদের সব আনন্দ কেড়ে নিয়েছে। জীবননগরের আন্দুলবাড়িয়ার মীরপাড়ায় ভদ্রবেশী এক প্রতারক ছোট্র দু শিশু মণির সোনার কানের দুল অভিনব কায়দায় খুলে নিয়ে পালিয়েছে। শেষ পর্যন্ত প্রতারকের কোনো হছিস মেলেনি। এ ঘটনায় মিশুদের মাঝে অজানা আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।
এলাকাবাসীসূত্রে জানা গেছে, গতকাল শনিবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে আন্দুলবাড়িয়া মীরপাড়ার কাঁচামাল ব্যবসায়ী ইমান আলীর মেয়ে লিমা খাতুন (৬) ও প্রতিবেশী কাচাঁমাল ব্যবসায়ী মিন্টুর মেয়ে মিলি খাতুন (৫) বাড়ির সামনে সহপাঠি সাব্বির (৮), সুমনের (১০) সাথে খেলছিলো। এ সময় ভদ্রবেশী ২৫-৩০ বছর বয়সের কালো ছেলেটি নীল রঙয়ের মোটরসাইকেলেযোগে ব্যাগ, ব্যাগেজসহ ছোট্র শিশু মণিদের খেলাস্থলে পৌঁছায়। মোটরসাইকেল পরিষ্কার করার জন্য শিশু সাব্বিরকে বাড়ি থেকে পাটের আঁশ আনতে বলেন। সাব্বির অপরাগতা প্রকাশ করে বাড়ির মধ্যে চলে গেলে অপর সহপাঠি শিশু সুমনকে একই অনুরোধ জানায়। সুমন সরল বিশ্বাসে পাটের আঁশ বাড়ির ভেতর আনতে গেলে প্রতারক শিশু লিমাকে কাছে ডেকে সোহাগ করতে করতে বলেন, মনি কান ফুটিয়েছে। তোমার কানে ব্যাথা পেয়েছো, আমি ওষুধ দিলে সেরে যাবে। ওষুধ দিচ্ছি বলে কানে হাত দিয়ে কৌশলে একটি সোনার কানের দুল খুলে নেয়। একই কথা বলে মিলি খাতুনের অপর একটি সোনার কানের দুল খুলে নিয়ে মোটরসাইকেলে যোগে সটকে পড়ে। শিশু সুমন পাটের আঁশ নিয়ে এসে দেখে আগন্তক উধাও। এ সময় মিলি তার খেলার সাথী লিমাকে বলে তোর কানের দুল কই, লিমা বলে তোর কানের দুল কই। শিশুদের কান্নাকাটি আর হইচই। ততোক্ষণে ভদ্রবেশী প্রতারক পগারপার।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *