অস্ত্র ও গুলিসহ গাংনী র‌্যাবের হাতে আটক মামলার রায় -ভারতীয় অস্ত্র ব্যবসায়ী গাজী ম-লের যাবজ্জীবন

মেহেরপুর অফিস: ভারতীয় নাগরিক ও অস্ত্রব্যবসায়ী গাজি ম-লকে (৪৭) যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছেন মেহেরপুর স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-১। আগ্নেয়াস্ত্র-গুলি চোরাচালান মামলায় তাকে দোষী সাব্যস্ত করে স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-১ এবং জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক গাজী রহমান গতকাল বুধবার দুপুরে ওই রায় ঘোষণা করেন। আদালতের নির্দেশে তাকে মেহেরপুর জেলা কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।
গাজি ম-ল ভারতের নদীয়ার মুরুঠিয়া থানার গান্ধিনা গ্রামের মৃত জহিরুদ্দীন ম-লের ছেলে। ২০১৫ সালের ৯ মে গাংনী উপজেলার ভারতীয় সীমান্তবর্তী গ্রাম কাজিপুর থেকে ২টি পিস্তল, ১টি ওয়ানশ্যুটারগান, ৪টি ম্যাগজিন ও ১২ রাউন্ড গুলিসহ তাকে আটক করেছিলো র‌্যাব-৬ গাংনী ক্যাম্প।
মেহেরপুর জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাড. পল্লব ভট্টাচার্য জানান, র‌্যাবের দায়ের করা মামলায় হাজতে ছিলেন গাজী ম-ল। ২০১৫ সালের ১৮ জুন গাংনী থানা পুলিশ মামলাটি তদন্ত করে আদালতে চার্জসিট প্রদান করেন। বিজ্ঞ বিচারক সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে তাকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদ-াদেশ প্রদান করেন। রায় ঘোষণাকালে গাজী ম-ল আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পলœব ভট্টাচার্য। তবে গাজী ম-লের কোনো আত্মীয়-স্বজন আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।
র‌্যাব ও সীমান্তের বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, মেহেরপুর জেলার সীমান্তর্বী এলাকায় যারা অস্ত্র ব্যবসার সাথে জড়িত তাদের সাথে গাজী ম-লের সখ্যতা ছিলো। বিজিবি-বিএসফর চোখ ফাঁকি দিয়ে সে অস্ত্রের চালান নিয়ে বাংলাদেশে অবস্থান করতো। যার অংশ হিসেবে অস্ত্র-গুলি নিয়ে এদেশের প্রবেশ করছিলো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৬ গাংনী ক্যাম্পের ওই সময়কার কমান্ডারে দায়িত্বপ্রাপ্ত এএসপি উৎপল রায় অভিযান পরিচালনা করেন। কাজিপুর গ্রামের বর্ডারপাড়ার আন্তর্জাতিক সীমানা পিলার ১৪৪ নং এলাকা দিয়ে অস্ত্র গুলি নিয়ে গাজী ম-ল কাজিপুর গ্রামে প্রবেশের সময় তাকে আটক করা হয়। গাজী ম-লের কাছ থেকে ৭ দশমিক ৬৫ মডেলের ২ টি পিস্তল, একটি ওয়ানশ্যুর্টার গান ও ৪টি ম্যাগজিন, ৭.৬৫ পিস্তলের ১০ গুলি ও ওয়ানশ্যুটার গানের ২টি গুলি উদ্ধার করা হয়। র‌্যাবের অভিযানে সহযোগিতা করেন বিজিবির একটি দল। তবে গাজী ম-ল আটকের পর এদেশে থাকা তার সহযোগী অস্ত্র ব্যবসায়ীরা কেউ গ্রেফতার হয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published.