অনিয়ম ও দুর্নীতির শীর্ষে সোনালী প্রাইম ও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক

 

স্টাফ রিপোর্টর: ব্যাংকিং খাতে আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগের দিক থেকে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে সোনালী ব্যাংক। এরপরই রয়েছে জনতা ও বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক। বেসরকারি ব্যাংকগুলোর মধ্যে প্রাইম ব্যাংক। বিদেশি ব্যাংকগুলোর মধ্যে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের বিরুদ্ধে অধিক পরিমাণ অভিযোগ জমা পড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে। আগামী মঙ্গলবার ব্যাংকিংখাতে গ্রাহক স্বার্থ সংরক্ষণের ওপর বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমানের উপস্থিতিতে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে বলেও ওই বিজ্ঞপ্তিতে জানা গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক জানিয়েছে, গ্রাহক স্বার্থ সংরক্ষণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার পর থেকে চলতি বছরের ৩০ জুন-১৩ পর্যন্ত মোট সাত হাজার ১৪৪টি অভিযোগ এসেছে। অভিযোগগুলোর মধ্যে পাঁচ হাজার ৫৯৭টি অভিযোগ নিষ্পত্তি করা হয়েছে। সে হিসেবে নিষ্পত্তির হার ৭৮ দশমিক ৩৫ শতাংশ। আর ২০১২-২০১৩ অর্থবছরে জমা হওয়া চার হাজার ২৯৬টি অভিযোগের মধ্যে নিষ্পত্তি হয়েছে ২ হাজার ৯৪১টি।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিগত ২০১২-১৩ অর্থবছরে গ্রাহকদের অভিযোগের শীর্ষে রয়েছে সোনালী ব্যাংক। একই সময়ে বেসরকারি খাতে ব্যাংকগুলোর মধ্যে প্রাইম ব্যাংক এবং বিদেশি ব্যাংকগুলোর স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের বিরুদ্ধে অধিক পরিমাণ অভিযোগ কেন্দ্রীয় ব্যাংকে জমা পড়েছে।

অভিযোগগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে স্বীকৃত বিলমূল্য পরিশোধ না করা সংক্রান্ত অভিযোগ এবং দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সাধারণ ব্যাংকিং সংক্রান্ত। এছাড়া প্রাপ্ত অভিযোগগুলোর মধ্যে ঋণ ও অগ্রিম, রেমিটেন্স, মোবাইল ব্যাংকিং ও ডেবিট বা ক্রেডিট এবং এটিএম কার্ড সংক্রান্ত অভিযোগ রয়েছে।

জানা গেছে,  ব্যাংকিং খাতে গ্রাহকদের আস্থা ও সন্তুষ্টি বজায় রাখার পাশাপাশি ব্যাংকিং সেবা পেতে গ্রাহকদের হয়রানি লাঘবের উদ্দেশ্যে ২০১১ সালের মার্চ মাসে হেল্পডেস্ক চালু করা হয়। ওই বছরের ৫ সেপ্টেম্বর এর নাম পরিবর্তন করে গ্রাহক স্বার্থ সংরক্ষণ কেন্দ্র রাখা হয়। গ্রাহকদের চাহিদার প্রেক্ষিতে এর কার্যক্রমকে আরো বেগবান ও গণমুখি করতে ২০১২ সালের ২৫ জুলাই ওই কেন্দ্রকে একটি পূর্ণাঙ্গ বিভাগে রূপান্তর করা হয়। যার নামকরণ করা হয় ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টিগ্রিটি অ্যান্ড কাস্টমার সার্ভিসেস ডিপার্টমেন্ট।

আরো জানা গেছে, দেশব্যাপি ব্যাংক গ্রাহকদের অভিযোগ দ্রুত নিষ্পত্তির সুবিধার্থে বাংলাদেশ ব্যাংকের নয়টি শাখা অফিসেও এ গ্রাহক স্বার্থ সংরক্ষণ কেন্দ্র চালু করা হয়েছে। সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিন ব্যতীত সব কর্মদিবসে অফিস চলাকালীন সময়ে ফোন, ফ্যাক্স, এসএমএস, ওয়েবসাইট, ইমেল, ডাকযোগে অভিযোগ গ্রহণের পাশাপাশি দেশ-বিদেশের ব্যাংকিং সেবা প্রত্যাশি অসংখ্য মানুষের ব্যাংকিং ও ব্যবসায়িক জিজ্ঞাসারও জবাব প্রদান করা হয়ে থাকে। এ লক্ষ্যে গ্রাহক স্বার্থ কেন্দ্রে  ১৬২৩৬ নম্বরের একটি হটলাইন চালু করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *