জেলহত্যা দিবস : চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুরসহ সারাদেশে নানা কর্মসূচি পালন : ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সভায় প্রধানমন্ত্রী

সময়মতোই সর্বদলীয় সরকারের অধীনে দেশে নির্বাচন হবে : হরতাল প্রত্যাহার করে আলোচনায় আসুন

 

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সময়মতোই সর্বদলীয় সরকারের অধীনে দেশে অবাধ ও নিরপেক্ষ সংসদ নির্বাচন হবে। বিরোধী দলীয় নেতার উদ্দেশে ৬০ ঘণ্টার হরতাল প্রত্যাহার করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ১৭ লাখ শিশু শিক্ষার্থীর জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলবেন না। শিশুদের শিক্ষাজীবন ধ্বংস ও কোমল মন ভেঙে দেবেন না। আহূত হরতাল প্রত্যাহার করে লাখ লাখ ছাত্রছাত্রীকে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দিন।

আলোচনার দরজা খোলা আছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তবে তার আগে হরতাল প্রত্যাহার করতে হবে। বিরোধীদলীয় নেতাকে জাতির কাছে ওয়াদা করতে হবে আর হরতাল দিয়ে মানুষ খুন ও দেশের সম্পদ নষ্ট করবেন না। হরতালের নামে কেউ যাতে জানমালের ক্ষতিসাধন করতে না পারে সেজন্য প্রত্যেক এলাকায় সন্ত্রাসবিরোধী কমিটির মাধ্যমে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী দেশবাসীকে সজাগ ও সতর্ক থাকার জন্য আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

গতকাল রোববার বিকেলে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ এ জনসভার আয়োজন করে। এদিকে জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা ছাত্রলীগ ও দর্শনা আওয়ামী লীগ আলোচনাসভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। মেহেরপুরেও অভিন্ন কর্মসূচি পালনের খবর পাওয়া গেছে।

জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। গতকাল রোববার সকাল সাতটায় জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এরপর জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে। চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন জাতীয় পতাকা ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন। বিকেল চারটায় পৌরসভার হলরুমে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান। এ সময় বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মাসুদউজ্জামান লিটু, সাংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন, শ্রমিকলীগের সভাপতি আফজালুল হক, ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শফিউদ্দিন টিটু, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশিক ইকবাল স্বপন প্রমুখ।

এ সময় বক্তরা বলেন, ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের নির্জন প্রকোষ্ঠে জাতীয় চার নেতাকে নির্মম ও নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। তারা শুধু জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি, গুলিবৃদ্ধ দেহকে খুঁচিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। এজন্য দেশবাসী এখন আশায় বুক বেধেছে এর বিচার এ সরকারের আমলেই দেখতে চায়। পরে জেলহত্যা দিবসে শহীদ জাতীয় চার নেতার আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। সার্বিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের উপপ্রচার সম্পাদক শওকত আলী বিশ্বাস।

চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ৩ নভেম্বর জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। হয়। কেদারগঞ্জে জেলা ছাত্রলীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শরীফ হোসেন দুদু। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আলী আহাম্মেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক হাবিবুর রহমান, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক অ্যাড. শফি, চুয়াডাঙ্গা পৌর ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সোহরাব হোসেন, ৭ নং ওয়ার্ডে সাধারণ সম্পাদক ইছাহক আলী, সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবাইদুর রহমান চোধুরী জিপু, অ্যাড. ফিরোজ আহাম্মেদ, সদর থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লাল্টু, সাবেক কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহামন কালু, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি শরিফ উদ্দিন, মেহেদী, যুগ্ম সম্পাদক ফরিদ হোসেন, সাবেক দপ্তর সম্পাদক মতি, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ফরিদ আহম্মদ, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি জাবিদ, সাধারণ সম্পাদক সজল, সদর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক সুমন রেজা, কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জানিফ প্রমুখ।

আলোচনাসভায় বক্তারা বলেন, যারা গণতন্ত্রকে হত্য করার জন্য অহেতুক হরতাল দিয়ে সংলাপের রাস্তা বন্ধ করতে চায় তারা দেশ ও জাতির শত্রু । আগামী জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হোক তা চায় না। আগামী নির্বাচনে জয়লাভ করা যায় সেজন্য ছাত্রলীগের সকল ইউনিটকে একত্রিত হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। আলোচনাসভায় জাতীয় চার নেতা হত্যার দ্রুত বিচার দাবি করে তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া করা হয়। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রিংকু হোসেন জোয়ার্দ্দার।

আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, আলমডাঙ্গায় গতকাল রোববার জাতীয় চার নেতার স্মরণে আলোচনাসভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেন কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা শামসুল আবেদীন খোকনপন্থি আলমডাঙ্গা উপজেলার ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দ। আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আইয়ুব হোসেন।

কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শাহিন রেজার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন- উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি তাফসির আহমেদ লাল, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি মিজানুর রহমান, কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুর রহমান পিন্টু, সাবেক ছাত্র নেতা মুকুল। উপস্থিত ছিলেন- ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মিকাইল হোসেন, কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পিন্টু, পৌর প্রচার সম্পাদক তছবির মুন্না, সাহাবুদ্দিন, খয়বর, রনি, সুমন, অপু, মিলন, শোভন, জুবায়ের, শাকিল, অভী, কাদের প্রমুখ।  আলোচনাসভা শেষে  রুহের মাগফেরাত কামনায় মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

অপরদিকে ৩ নভেম্বর জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আলমডাঙ্গা উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিকেল চারটায় দলীয় কার্যালয় আলোচনাসভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাদির গনু। প্রধান অতিথি ছিলেন- জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আওরঙ্গজেব মোল্লা টিপু। বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু মুসা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মজিবর রহমান, আহমেদ হাসিব রেজা রাজা মিয়া, আমিরুল ইসলাম মন্টু চেয়ারম্যান, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী খালেদুর রহমান অরুন। বক্তব্য রাখেন- সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম খান, কৃষকলীগের আহ্বায়ক আজিজুল হক, হামিদুল ইসলাম আজম, আওয়ামী লীগ নেতা আহসান মৃধা, সরোয়ার হোসেন, মহত আলী, যুবলীগ নেতা মনিরুজ্জামান, টগর, ডিটু, সুমন, পিয়ার মুহাম্মদ কচি প্রমুখ। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন বড় মসজিদের ইমাম মাও. ইলিয়াস হোসেন।

দর্শনা অফিস জানিয়েছে, ‘উদয়ের পথে শুনি কার বাণী ভয় নাই ভয় নাই, নিঃশেষে প্রাণ যে করবে দান ক্ষয় নাই ক্ষয় নাই’ এ প্রতিবাদ্যকে বুকে ধারণ করে জাতীয় চার নেতার জেলহত্যা দিবসে দর্শনায় স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগ এ দিবসটি পালনে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। গতকাল রোববার সকাল ১০টার দিকে দর্শনা পৌর আ.লীগের কার্যালয়ে জাতীয়, দলীয় ও শোক পতাকা উত্তোলন করা হয়। শহীদ চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে অনুষ্ঠিত হয়েছে স্মরণসভা। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবর রহমানের ডাকে দেশের যে সকল বর্ষিয়ান নেতা মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তাদের মধ্যে এ চার নেতা ছিলেন অন্যতম। দুঃখের বিষয় জেলখানায় বর্ষিয়ান এ চারনেতাকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিলো স্বাধীনতা বিরোধীচক্র। ইতিহাসের পাতায় সূচনা হয়েছিলো এক কালো অধ্যায়ের। আজো তারা স্বাধীনতা বিরোধীরা দেশ ধ্বংসের নানামুখি ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। ওদের এ নৈরাজ্যকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করতে হবে। দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বক্তব্য রাখেন- দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের যুগ্মসম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান জাকারিয়া আলম, দর্শনা পৌর আ.লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম, আ.লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলী, রুস্তম আলী, মোমিনুল ইসলাম, মোজাহারুল ইসলাম, গোলাম ফারুক আরিফ, শহিদুল ইসলাম, আবু সাঈদ খোকন। উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলামের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন- আ.লীগ নেতা মোবারক হোসেন, মিজানুর রহমান, ইদ্রিস আলী, আলী হোসেন, হামিদুল্লাহ, আবু তালেব, নজির আহম্মেদ, আব্দুর রাজ্জাক, শফিকুল আলম, আ, রফিক কাবি, হাতেম মণ্ডল, মোশাররফ হোসেন, আতিয়ার রহমান হাবু, বিল্লাল হোসেন, সিরাজুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম মাস্টার, যুবলীগ নেতা আব্দুল হান্নান ছোট, আজিজুর রহমান বাবু, শেখ আসলাম আলী তোতা, জয়নাল আবেদীন নফর, আব্দুস সালাম ভুট্টো, সাইফুল ইসলাম হুকুম, একে আজাদ কিরণ, হাবিবুর রহমান মিলন, সাজাহান মোল্লা, মামুন শাহ, সোলায়মান কবির, স্বপন, খালিদ হোসেন মিঠু, রফিকুল, আমিরুল, হাফিজ মল্লিক, মহিবুল, আসাদুল ইসলাম, রেজাউল ইসলাম, কুদ্দুস, ফয়সাল মাহমুদ, ছাত্রলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম ববি, নাহিদ পারভেজ, আলামিন, লোমান, রুবেল প্রমুখ।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুর শহর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে গতকাল ৩ নভেম্বর জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবদুল হালিম, শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্কাস আলী, সহসভাপতি ডা. ওমর ফারুক, যুগ্ম সম্পাদক আসলাম খান পিন্টু, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মোখলেছুর রহমান মুকুল, মুজিবনগর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুল হাসান চান্দু, সদর থানা কৃষকলীগের সভাপতি ইউপি সদস্য জাফর ইকবাল, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিলন, জেলা যুবলীগের সভাপতি সাজ্জাদুল আনাম, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুল আলম সাজ্জাদ, শহর যুবলীগের সভাপতি শেখ কামাল, জেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক নিশান সাবের, সাংগাঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান হিরন, শহর যুবলীগের সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম, ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সহসভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ, যুবলীগ নেতা গোপাল, অপুসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা সভা ও দোয়া মহফিলে অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করা হয়। পরে জাতীয়, দলীয় ও কালো পতাকা উত্তোলন এবং নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এর আগে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা কালোব্যাজ ধারণ করেন।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে মেহেরপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে কলেজ ক্যাস্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক কুদরুত ই খোদা রুবেলের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল কলেজ ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। পরে শহীদ রেজাউল হক চত্বরে সমাবেশে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন- জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বারিকুল ইসলাম লিজন। বক্তব্য রাখেন- জেলা ছাত্রলীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক বকতিয়ার হোসেন, সদর থানা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জুলফিকার আলী, সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম আনন্দ, কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক কুদরুত-ই খোদা রুবেল, সাংগাঠনিক সম্পাদক বেজির আহমেদ বাদল, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক তরিকুল ইসলাম প্রমুখ।

মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মুজিবনগর উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে গতকাল রোববার বিকেলে মুজিবনগর রেস্টহাউসে জেলহত্যা দিবস পালনে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মুজিবনগর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল হাসান চান্দুর সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন- মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জিয়ার উদ্দিন বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক  রফিকুল ইসলাম মোল্লা। বক্তব্য রাখেন- দারিয়াপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন, সম্পাদক মোজাম্মেল হক মোল্লা, বাগোয়ান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কুতুবউদ্দিন, জেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক নিশান সাবের, উপজেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের সভাপতি রাজিব আহমেদ, মুজিবনগর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রোকনুজ্জামান, সম্পাদক বিদ্যুত, যুবলীগ নেতা লাল্টু প্রমুখ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *