চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে জাতীয় টিকা দিবসের উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় ২১তম জাতীয় টিকা দিবসের উদ্বোধন করা হয়েছে। উদ্বোধন উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গার মালোপাড়ায় গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় সাড়ে চার বছর বয়সী শিশু আনিকা জারিনের মুখে টিকা খাওয়ানোর মধ্যদিয়ে দিবসের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মল্লিক সাঈদ মাহবুব। এ সময় চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন ডা. খন্দকার মিজানুর রহমান, পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আনজুমান আরাসহ স্বাস্থ্য বিভাগীয় কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সিভিল সার্জন ডা. খন্দকার মিজানুর রহমান জানান, গতকাল শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু করে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চুয়াডাঙ্গা জেলায় ৯৮০টি কেন্দ্রে ১ লাখ ১৮ হাজার ৩শ ৬২ জন শূন্য থেকে ৫ বছর বয়সের শিশুদেরকে ২ ফোঁটা করে পোলিও টিকা খাওয়ানো হচ্ছে। এছাড়া ২২ ডিসেম্বর থেকে ২৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাদপড়া শিশুদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম চলবে।

মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ২১তম জাতীয় টিকা দিবসে মেহেরপুর মুজিবনগর উপজেলার ০-৫ বছর বয়সী সকল শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানো হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ৮টার দিকে বাগোয়ান কমিউনিটি সেন্টারে শিশুদের টিকা খাইয়ে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার হাসান আলী। উপস্থিত ছিলেন ইপিআই কর্মকর্তা আব্দুর মজিদ ও স্বাস্থ্য পরিদর্শক আব্দুল হাই। উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের টিকাকেন্দ্র, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন স্থানের ১০৩টি কেন্দ্রের মাধ্যমে টিকা খাওয়ানো হচ্ছে। এবারের লক্ষ্যমাত্রা ৮ হাজার ৬শ শিশু।

দর্শনা অফিস জানিয়েছে,  গতকাল শনিবার ছিলো ২১তম জাতীয় টিকা দিবস। দর্শনা পৌরসভার ৪০টি কেন্দ্রে এ টিকা দিবস পালিত হয়েছে। সকাল ৮টায় দর্শনা পৌরমেয়র মহিদুল ইসলাম পৌরভবন কেন্দ্রে ০-৫৯ মাস বয়সী শিশুদের দু ফোঁটা পোলিও টিকা খাওয়ানোর মাধ্যমে টিকা দিবসের উদ্বোধন করেন। পরে তিনি পৌরসভার প্যানেল মেয়র শরীফ উদ্দিনকে সাথে নিয়ে এলাকার সবকটি টিকাদান কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন রেজাউল ইসলাম, রবিউল হক সুমন, জাহিদুল ইসলাম, মেহেদী হাসান প্রমুখ।

জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, ২১তম জাতীয় টিকা দিবস উপলক্ষে গতকাল শনিবার জীবননগর উপজেলায় ১৮ হাজার ৭১৫ শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানো হয়। জীবননগর পৌরসভা ও উপজেলার উথলী, আন্দুলবাড়িয়া, বাঁকা, হাসাদাহ, রায়পুর ও সীমান্ত ইউনিয়নের ১১০টি কেন্দ্রে ও পৌরসভার ২৯টি কেন্দ্রে এ টিকা খাওয়ানো হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. আবু হাসানুজ্জামান নূপুর ইউনিয়ন পর্যায়ে ও জীবননগর পৌরসভার প্যানেল মেয়র মশিউর রহমান জীবননগর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ দিবসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

পৌর টিকাদান সুপারভাইজার জামাল উদ্দিন জানান, সকালে জীবননগর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌর প্যানেল মেয়র মশিউর রহমান এ টিকা দিবসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এসময় পৌরকাউন্সিলর কাজী নাসির ইকবাল ঠাণ্ডু, কাউন্সিলর নবী শাহ্, পৌর হিসাবরক্ষক আ.ন.ম মোস্তফা কামাল ও লাইসেন্স পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, ২১তম জাতীয় টিকা দিবসে মেহেরপুরে ০-৫ বছর বয়সী সকল শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানো হয়।

গতকাল শনিবার সকাল ৮টার দিকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ওই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মেহেরপুর সিভিল সার্জন ডা. আবদুস শহীদ। জেলার বিভিন্ন গ্রামে অবস্থিত ইপিআই টিকাদান কেন্দ্র ছাড়াও জেনারেল হাসপাতাল, মেহেরপুর পৌরসভা ভবন, মেহেরপুর বাসস্ট্যান্ড, কাথুলী বাসস্ট্যান্ড, যাদবপুর ঘাট, গোভিপুর ঘাট, মেহেরপুর মা ও শিশুকল্যাণ কেন্দ্রসহ জেলার বিভিন্ন কেন্দ্রে ৬১ হাজার ৫৪৯ শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। এতে কাজ করছেন ২ হাজার ৪৪৫ স্বেচ্ছাসেবক।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *