আলমডাঙ্গার আসমানখালীতে গ্রাম প্রতিরক্ষা দল উদ্বোধনকালে পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান

 

যারা গুপ্তহত্যা করছে তাদেরকে আইনের আওতায় আনতে পুলিশ বদ্ধপরিকর

স্টাফ রিপোর্টার: জঙ্গি, সন্ত্রাস ও গুপ্তহত্যা দমনে এবার আলমডাঙ্গার আসমানখালীতে গ্রাম প্রতিরক্ষা দলের হাতে বাঁশের লাঠি তুলে দিয়েছে পুলিশ। হিন্দু মুসলিম খ্রিষ্ট্রান ভাই ভাই, জাতিগত কোনো বিভেদ নাই এ স্লোগানে আসমানখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় চত্বরে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান। তিনি গ্রাম প্রতিরক্ষা দলের সদস্যদের হাতে বাঁশের লাঠি ও বাঁশি তুলে দেন। এ সময় তিনি বলেন, পুলিশ তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করে যাচ্ছে। বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনের নামে যারা গুপ্তহত্যা করছে, তাদেরকে ধরে আইনের আওতায় আনতে পুলিশ বদ্ধপরিকর। জঙ্গী সন্ত্রাস ও গুপ্তহত্যা দমনে প্রতিটি গ্রামে প্রতিরক্ষা দল গঠন করা হচ্ছে। তাদের হাতে লাঠি ও বাঁশ তুলে দেয়া হচ্ছে। সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনার জন্য কোনো অপরিচিত লোক এলাকায় এলে তাকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করতে হবে। পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

গতকাল শনিবার বেলা ৪টার দিকে অনুষ্ঠানে গাংনী ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহেরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মোহাম্মদ ছুফী উল্লাহ, আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেহেদী রাসেল, সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান, গাংনী ইউনিয়ন প্রতিরক্ষা দলের সভাপতি আবদুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক রকিবুল হাসান, ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক রোকনুজ্জামান টোকন প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলোয়াত করেন হামিদুল হক ও গীতাপাঠ করেন শ্রী কান্তি সাহা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন নান্দবার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক হুমায়ূন কবীর টুলু।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *