একুশে পদকপ্রাপ্ত বাউল সাধক খোদাবকশ শাহের ২৬তম মৃত্যুবার্ষিকীতে জাহাপুরে দু দিনের স্মরণোৎসব শুরু

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার জাহাপুরে দেশ বরেণ্য বাউল সাধক একুশে পদকপ্রাপ্ত খোদাবকশ শাহের ২৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দু দিনব্যাপী স্মরণোৎসব শুরু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি ও বাউল গানের মধ্যদিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়। শাহের একমাত্র ছেলে প্রখ্যাত বাউল আব্দুল লতিফ শাহ ও পুত্রবধূ রেখা শাহ অতিথিদেরকে স্বাগত জানান।
কর্মসূচিতে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি ইউনিট কমান্ডার গোলাম মোস্তফা খান, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার (দফতর) ফজলুর রহমান, নাগদাহ ইউনিয়ন কমান্ডার মুনসুর আলী, নাগদাহ ইউনিয়ন ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল খালেক ও আলমডাঙ্গা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাংগঠনিক কমান্ডার আতিয়ার রহমান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খোদাবকশ শাহ’র লেখা গানসহ বাউল সঙ্গীত পরিবেশন করেন বাউল আব্দুল লতিফ শাহ, বাউল গঞ্জের শাহ, মিলন শাহ , বাবলু শাহ, আক্কাচ আলী শাহ ও কুতুবুল আলম।
এদিকে দুদিনের এই উৎসবকে ঘিরে খোদাবকশ শাহের সমাধি চত্বরে দেশ-বিদেশ থেকে আসা বাউলদের সমাগম ঘটেছে, বসেছে গ্রামীণ মেলা। আজ শুক্রবার রাতে দু দিনের এই উৎসব শেষ হবে।
আলমডাঙ্গার জাহাপুরে মরমী কবি খোদাবকশ শাহ বাংলা ১৩৩৪ সালের ৩০ চৈত্র (১৯২৮ খ্রিঃ) জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯০ সালের ১৪ জানুয়ারি (১ মাঘ ) তিনি ইহলোক ত্যাগ করেন। ১৯৯১ সালে খোদাবকশ শাহকে বাংলা একাডেমি মরণোত্তর একুশে পদক প্রদান করে।
আব্দুল লতিফ শাহ জানান, ঢাকাস্থ খোদাবকশ শাহ স্মৃতি সংসদের সদস্য সচিব কামরুজ্জামান কাফি সহযোগিতার হাত না বাড়ালে দীর্ঘদিন ধরে স্মরণোৎসব উদযাপন করা সম্ভব হতো না। তবে, চলতি বছরে সাংস্কৃতিক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের পৃষ্ঠপোষকতা বাবা শাহসহ আমাদের পরিবারকে অনেক সম্মানিত করেছেন। আয়োজনকে করেছে সমৃদ্ধ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *