প্রধানমন্ত্রীর সহকারীর পদ হারালেন হানিফ

স্টাফ রিপোর্টার: প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারীর পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফকে। গতকাল রোববার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক আদেশে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানান মন্ত্রণালয়টির সচিব আবদুস সোবহান সিকদার। এ ব্যাপারে মাহবুব উল আলম হানিফ জানান, ‘আমি নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারীর পদ লাভজনক। আর লাভজনক পদে থেকে নির্বাচনে যাওয়া যায় না। তাই আমি নিজেই পদত্যাগের জন্য আবেদন করেছিলাম। সেই হিসেবে আজ (গতকাল) এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’ তবে এর আগে ৯ অক্টোবর আওয়ামী লীগের তৃণমূল বৈঠকে হানিফ এ পদটিকে ‘অলাভজনক’ বলে দাবি করেছিলেন। ৯ অক্টোবরের বৈঠকে হানিফের কিছু কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রী তাকে পদত্যাগ করে জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের কথা বলেছিলেন। আওয়ামী লীগের কয়েকটি সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি ভেঙে দেয়ায় হানিফের ওপর বিরক্ত ছিলেন। কেন এ কমিটি ভাঙা হলো, বিষয়টি হানিফের কাছে জানতে চান প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু তার কাছ থেকে কোনো সদুত্তর না পেয়ে বিরক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। ৯ অক্টোবর কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা কুষ্টিয়া-২ আসন থেকে হানিফকে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য শেখ হাসিনার কাছে দাবি জানান। তারা বলেন, হানিফের নেতৃত্বে কুষ্টিয়ায় আওয়ামী লীগ সাংগঠনিকভাবে অনেক শক্তিশালী। তৃণমূল নেতাদের কেউ কেউ বলেন, এ আসনে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু স্বতন্ত্র প্রার্থী হলে তার জামানত বাজেয়াপ্ত হবে। এ আসনে হানিফ একমাত্র জনপ্রিয় প্রার্থী।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *