চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীতা প্রত্যাশী অ্যাড. আলমগীরের মনোনয়নফরম জমা

স্টাফ রিপোর্টার: ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অসন্ন। তবে কবে হবে, কখন কীভাবে হবে তা এখনও অনিশ্চয়তার মধ্যে। এরই মাঝে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনোয়নপত্রের আবেদন ফরম বিক্রি শুরু করেছে। চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে তিনজন, অপর আসনে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশীর সংখ্যা গতকাল পর্যন্ত ৯ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে অ্যাড. আলমগীর হোসেন পিপি গতকাল মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিএনপি নেতৃবৃন্দ এখন আন্দোলন নিয়ে ব্যস্ত। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে চলমান আন্দোলনের শেষ কোথায়? এ প্রশ্নের জবাব মিলছে না।

চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক। তিনি মনোয়নফরম বিক্রির প্রথম দিনেই সংগ্রহ করেন। অন্যদের আগেই তিনি পূরণ করে তা জমাও দিয়েছেন। তার সাথে থাকা পাশে থাকাদের মধ্যেও অনেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। এদের মনোনয়নপত্র ক্রয় অনেকটা আলী আজগার টগরকে সমর্থন করার জন্যই। সংশ্লিষ্টরা এরকমই তথ্য দিয়েছেন। চুয়াডাঙ্গা আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে অ্যাড. আলমগীর হোসেন পিপিকে মনোনীত করেন। তিনি মনোনয়নপত্র কেনার পর পুরণ করে গতকাল বুধবার তা জমা দেন। এছাড়া মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র কিনেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আজাদুল ইসলাম আজাদ, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝণ্টু, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান মঞ্জু, দর্শনা আওয়াশী লীগ নেতা দর্শনা পৌরসভার সাবেক মেয়র মতিয়ার রহমান, কার্পাসডাঙ্গার ছেলে ঢাকার বাসিন্দ অ্যাড. শাহারিয়ার কবীর, মীর্জা সুলতান রাজার ভাই মীর্জা শাহরিয়ারি লণ্টু।

এদিকে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আলমডাঙ্গার ছেলে শেখ শামসুল আবেদীন খোকন ও কেন্দ্রীয় কৃষকলীগেরসহ দফতর সম্পাদক আলমডাঙ্গার ছেলে নাজমুল ইসলাম পানু।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *