২১ অক্টোবর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ও উপজেলা কমান্ডের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা মাঠে : ভোটারদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা

 

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নির্বাচন-২০১৩ উপলক্ষে খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলার চারটি উপজেলায় খসড়া ভোটার তালিকা অনুযায়ী সর্বমোট ভোটারের সংখ্যা এক হাজার ২১৮ জন। মনোনয়নপত্র দাখিলের তারিখ আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর এবং আগামী ২১ অক্টোবর সোমবার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষে কমান্ডার প্রার্থীরা ইতোমধ্যে প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন।

চুয়াডাঙ্গার চার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে রিটার্নিং ও রেজিস্ট্রেশন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে। নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণ করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে খসড়া ভোটার তালিকা ইউএনও কার্যালয়ের নোটিশ বোর্ডে ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে এবং প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নির্বাচন-২০১৩ নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের উপসচিব (প্রশাসন) মাহমুদুল হাসান স্বাক্ষরিত গত ৫ সেপ্টেম্বরের একপত্রে বলা হয়েছে, ১১ সেপ্টেম্বর খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ এবং মাইগ্রেশন আবেদন গ্রহণ শুরু হয়েছে, মনোনয়নপত্র দাখিলের তারিখ ২৬ সেপ্টেম্বর এবং ভোট অনুষ্ঠিত হবে ২১ অক্টোবর। ওইদিন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের তিন স্তরে কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল, জেলা কমান্ড ও উপজেলা কমান্ডের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

চুয়াডাঙ্গার চার উপজেলার ঘোষিত খসড়া ভোটার তালিকা অনুযায়ী মোট মুক্তিযোদ্ধা ভোটারের সংখ্যা এক হাজার ২১৮ জন। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৪৪৪ জন ভোটার, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ৩৮০ জন, দামুড়হুদা উপজেলায় ২৮৩ জন ও জীবননগর উপজেলায় ১১১ জন।

মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় রিটার্নিং অফিসার বরাবর জেলা কমান্ডার প্রার্থীদের ৫ হাজার টাকা, ডেপুটি ইউনিট কমান্ডার প্রার্থীর জন্য ৩ হাজার টাকা এবং অবশিষ্ট প্রার্থীদের ২ হাজার টাকা জামানত প্রদান করতে হবে। উপজেলা কমান্ড প্রার্থীদের জন্য ৩ হাজার টাকা, ডেপুটি কমান্ডার প্রার্থীর জন্য ২ হাজার টাকা ও অবশিষ্ট প্রার্থীদের জন্য ১ হাজার টাকার পে-অর্ডার/ডিডি জামানত প্রদান করতে হবে। কর্মকর্তারা জানান, জেলা পর্যায়ে ১৭টি ও উপজেলা পর্যায়ে ১১টি পদে ভোটগ্রহণ করা হবে। এছাড়া কেন্দ্রীয় কমান্ড নির্বাচনে ভোটারদেরকে ৪১টি পদে ভোট প্রদান করতে হবে।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ ইতোমধ্যে ভোটের মাঠে নেমে পড়েছেন। বেশ কয়েকজন প্রার্থীর সাথে কথা বলে এরকমই তথ্য পাওয়া গেছে। জেলা কমান্ডার পর্যায়ে বর্তমান কমান্ডার নুরুল ইসলাম মালিক ও আবু হোসেন প্রার্থী হতে পারেন। উপজেলা পর্যায়ে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় বর্তমান কমান্ডার হাফিজুর রহমান জোয়ার্দ্দার, আ.শু. বাঙ্গালী ও আবু তালেব মণ্ডল, দামুড়হুদায় বর্তমান কমান্ডার আছির উদ্দিন ও লিয়াকত আলী, জীবননগরে নিজাম উদ্দিন ও শামসুর রহমান সাত্তার প্রার্থী হচ্ছেন।

আগামী নির্বাচন প্রসঙ্গে জেলা কমান্ডার পর্যায়ে আবু হোসেন প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও বর্তমান কমান্ডার নুরুল ইসলাম মালিক জানান, আগামী সোমবার নাগাদ বিষয়টি পরিষ্কার করবেন। এছাড়া উপজেলা পর্যায়ে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় বর্তমান কমান্ডার হাফিজুর রহমান জোয়ার্দ্দার, দামুড়হুদায় বর্তমান কমান্ডার আছির উদ্দিন ও জীবননগর উপজেলা কমান্ডার  নিজাম উদ্দিন প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে আলমডাঙ্গার বর্তমান কমান্ডারের সাথে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি।

এদিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসার সদর ইউএনও আবুল আমিন জানান, এ ব্যাপারে সহকারী রিটার্নিং অফিসার নিয়োগসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনজুমান আরা বলেন, চূড়ান্ত ভোটার তালিকায় মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা কমতে পারে।

Leave a comment

Your email address will not be published.