১০ আরোহীকে বেঁধে চালককে কুপিয়ে আলমসাধু নিয়ে চম্পট

চুয়াডাঙ্গা সরোজগঞ্জের বোয়ালিয়া সড়কের নবীননগর চারাতলায় দুর্বৃত্তের তাণ্ডব

স্টাফ রিপোর্টার: ওয়াজ শুনে বাড়ি আলমডাঙ্গার আইলহাস লক্ষ্মীপুরের একটি পরিবার ১১ জন ডাকাতির শিকার হয়েছেন। দুর্বৃত্তের দল আলমসাধুচালক রামেদুলকে কুড়ুল দিয়ে কোপ মেরে তার আলমসাধুটিও নিয়ে গেছে। গতপরশু রাত দেড়টার দিকে চুায়াডাঙ্গা জেলা সদরের ঝিলখালি থেকে ফেরার পতে নবীননগর চারাতলা নামক স্থানে এ ঘটনা সংঘটিত হয়।
আলমডাঙ্গার পারলক্ষ্মীপুরের মৃত মুনতাজ আলীর ছেলে রাশেদুল ইসলামকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে রাশিদুল ইসলাম বলেছে, ঝিলখালী গ্রামে ওয়াজ হচ্ছিলো। আমার আলমসাধুযোগে আমারই চাচাসহ আমাদের পরিবারের ১০ জন সদস্য ওই ওয়াজ শোনার জন্য যায়। সেখান থেকে ফেরার পথে সরোজগঞ্জ বোয়ালিয়া সড়কের নবীননগর চারাতলা নামক স্থানে গাছ ফেলে ধারালো অস্ত্র নিয়ে একদল ডাকাত আমাদের আটকে ফেলে। ডাকাতদল ধারালো অস্ত্রের মুখে ১১টি মোবাইলফোনসহ যার কাছে যা ছিলো তার সবই ডাকাতি করে নেয়। এরপর সড়কের ধারে বেধে রাখে। আলমসাধুটি ওরা নিয়ে যেতে চাইলে আমি (আলমসাধুচালক) জোরাজোরি করি। এ সময় আমি (আলমসাধুচালক) কৌশলে সরতে গেলে ওরা ওদের হাতে থাকা হাতকুড়ুল দিয়ে কোপ মারে। কোপটি লাগে বুকে। সারারাত ওইখানেই বাঁধা অবস্থায় থাকার পর সকালে নিজেরাই খুলে বাড়ি ফিরি। বাড়ির লোকজনকে সাথে নিয়ে হাসপাতালে এসে ভর্তি হয়েছি। আলমসাধুর খোঁজ মেলেনি। গতকাল শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডাকাতির শিকার কেউ পুলিশে নালিশ করেননি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *