হেরপুরের গাংনী পুলিশের অভিযান =পিস্তল-গুলিসহ দুজন গ্রেফতার

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনী উপজেলার সীমান্তবর্তী হাড়াভাঙ্গা গ্রাম থেকে ১টি নাইন এমএম পিস্তল, ২টি ম্যাগজিন ও ৪ রাউন্ড গুলিসহ দুই চোরাকারবারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকঅল শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে বামন্দী পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই মোস্তাক আহমেদ্দ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ওই সফল অভিযান চালায়। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- গাংনী উপজেলার চরগোয়ালগ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে ভিলু মিয়া (২৮) ও একই গ্রামের মৃত রফেজ উদ্দীনের ছেলে শফিরুল ইসলাম (৪০)।
গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, ভারতীয় সীমান্ত থেকে অস্ত্র ও গুলি নিয়ে সীমান্ত এলাকা থেকে গন্তব্যে ফিরছিলো দুজন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বামন্দী পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে হাড়াভাঙ্গা গ্রামে অবস্থান করেন। অস্ত্র-গুলি একটি শপিং ব্যাগে ভরে হাড়াভাঙ্গা মোল্লাপাড়ায় পৌছায় তারা। বাইসাইকেলযোগে পুলিশের কাছাকাছি পৌঁছে তারা পেছনের দিকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু পুলিশের অভিযান দলের সদস্যরা তাদের দুজনকে অস্ত্র-গুলিসহ গ্রেফতার করেন। তাদের কাছ থেকে ১টি নাইন এমএম (মেড ইন ইউএসএ), ৪ রাউন্ড গুলি ও ২টি ম্যাগজিন উদ্ধার করে। খবর পেয়ে গাংনী থানার ওসি আনোয়ার হোসেন ও পরিদর্শক তদন্ত (ওসি তদন্ত) কাফরুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এদিকে গ্রেফতারের পর প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের কাজ সম্পাদন করে দুজনকে গাংনী থানা হাজতে নেয়া হয়। সেখানে চলছে জিজ্ঞাসাবাদ। অস্ত্র-গুলিদাতা ও এগুলো কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিলো তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। গতরাতেই ভিলু ও শফিরুলের নামে অস্ত্র আইনে গাংনী থানায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। ওই মামলার আসামি হিসেবে আজ শবিার তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে জানান ওসি।
পুলিশ সূত্রে আরো জানা গেছে, জব্দকৃত অস্ত্রের বিষয়ে গভীরভাবে খোঁজ নেয়া হচ্ছে। অস্ত্রের উৎস ও গন্তব্য এবং এর সাথে জড়িতদের (এখনো অজ্ঞাত) ওই মামলার আসামি করা হবে। তাদেরকে যেকোনোভাবে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানায় পুলিশ।

Leave a comment

Your email address will not be published.