হিগুইয়েনের না-হওয়া গোল নিয়ে বিভ্রান্তি

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ম্যাচের তখন ৭৫ মিনিট। একটা গোলের জন্য হন্যে হয়ে মাথা কুটছে দুটো দলই। এমনসময় দারুণ এক গোল-সুযোগ পেয়ে গেল আর্জেন্টিনা। ডান প্রান্ত থেকে পেরেজেরদুর্দান্ত ক্রস। পা ছুঁয়ে দিলেন হিগুয়েইন। বলটিও যেন মনে হলো জায়গা করেনিয়েছে হল্যান্ডের জালে। গ্যালারির তো বটেই,সারাবিশ্বেই গর্জন করে উঠলোআর্জেন্টিনার সমর্থকেরা। কিন্তু না,গোলের নয়, রেফারির অফসাইডের বাঁশি!আর্জেন্টিনারবৈধ একটি গোল কি বাতিল হলো?প্রথম দেখায় তেমনটাই মনে হয়েছে। শুধু তা-ই নয়, ফেসবুক, ব্লগে এ নিয়ে তুমুল বিতর্ক হচ্ছে। এমনকি অনলাইনেরপাঠক মন্তব্যে রাশি রাশি মন্তব্য আসছে অফসাইডের ভুল সিদ্ধান্তে হিগুয়েইনেরবৈধ গোলটি বাতিল হওয়ারপ্রতিবাদে।অফসাইডের সিদ্ধান্তটি অবশ্যই ভুল ছিলো।কিন্তু তাই বলে গোল বাতিল হওয়া নিয়ে আফসোসের সুযোগ নেই। বল যে জালেরভেতরেই ঢোকেনি! সজোরে গিয়ে ধাক্কা খেয়েছে জালের বাইরের প্রান্তে। ফুটবলীয়ভাষায় যাকে বলে সাইড নেটিং।সেমিফাইনালের মতো ম্যাচে অফসাইডের খাঁড়ায়গোল বাতিল হলে, সেটিও ভুল সিদ্ধান্তের কারণে, ক্ষোভে ফুঁসে উঠতোআর্জেন্টিনার খেলোয়াড়রা। সরব প্রতিবাদ করতেন। রেফারিকে ঘিরেও ধরতেন। যারাভেবেছেন গোলটা বাতিল হয়েছে, আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়েরা প্রতিবাদ না করায়নিশ্চয়ই অবাকওহয়েছিলেন।বার্তা সংস্থাগুলোর উচ্চ রেজ্যুলেশনের ছবিতেওপরিষ্কার হয়েছে বলটা জালের বাইরে আঘাত হেনেছে। ভিডিও দেখলে অবশ্যবিভ্রান্তি জাগতে পারে স্বল্প রেজ্যুলেশন আর ক্যামেরার অ্যাঙ্গেলের কারণেই।তবে ডাচ গোলরক্ষক বলটা কোথায় থেকে কুড়িয়ে নিলেন, সেটা খেয়াল করলেই বুঝতেপারবেন,তিনি পোস্টের ভেতরে ঢোকেননি,বাইরের ডানপাশ থেকে বলটা কুড়িয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *