হাটবোয়ালিয়া বাজারে টয়লেটের তালাচাবি নিয়ে বাগবিতণ্ডা:গাংনী আমতৈল গ্রামে হামলা

 

 

গাংনী প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার হাটবোয়ালিয়া বাজারে টয়লেটের তালা-চাবি নিয়ে বাগবিতণ্ডার জের ধরে মেহেরপুর গাংনী উপজেলার আমতৈল গ্রামের একটি হিন্দু পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় ওই হামলায় একই পরিবারের পাঁচজন আহত হয়েছেন। গতরাতেই তাদেরকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। হাটবোয়ালিয়া বাজারের ব্যবসায়ী নান্নু মিয়ার নেতৃত্বে এ হামলা বলে অভিযোগ আহতদের।

আহত ও আমতৈল গ্রামসূত্রে জানা গেছে, আমতৈল বাজারের রাণী জুয়েলার্সের মালিক মনোরঞ্জন কর্মকারের দোকানে গতকাল সকালে বসে ছিলেন তার ভাগ্নে নির্মল কর্মকার। এসময় নগরবোয়ালিয়া গ্রামের ইশারত আলী এসে বাজারের টয়লেটের তালার চাবি দাবি করেন। কিন্তু নির্মল জানতেন না চাবি তার মামার দোকানেই থাকে। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে বাগবিতণ্ডা বাধে। উত্তেজনার এক পর্যায়ে মনোরঞ্জন এসে ভাগ্নের ভুল স্বীকার করে ইশারতের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

প্রাথমিকভাবে উত্তেজনার নিরসন হলেও ইশারতের ভাই হাটবোয়ালিয়া বাজারের মোবাইলব্যবসায়ী নান্নু মিয়াসহ ছয়জন মনোরঞ্জন কর্মকারের বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায়। তাদের মারধরের শিকার হন মনোরঞ্জন কর্মকার (৪৫), তার ভাইয়ের মেয়ে কনিকা কর্মকার (১৭) ও দীপা কর্মকার (১৪), স্ত্রী কেয়া কর্মকার (৩৮) ও ভাগ্নে নির্মল কর্মকার (২৭)। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে নির্মল কর্মকার ছাড়া বাকি চারজনকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। গতরাতে এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা কিংবা অভিযোগ করেননি ভুক্তভোগীরা। তবে আমতৈল গ্রামজুড়ে বইছে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *