হলমার্কের ঋণ জালিয়াতি : চার্জশিটে ২৫ আসামি

স্টাফ রিপোর্টার: সোনালী ব্যাংক থেকে হল-মার্কের ঋণ জালিয়াতির ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির এমডি তানভীর মাহমুদসহ ২৫ জনের বিরুদ্ধে ১১ মামলায় অভিযোগপত্র দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের উপপরিচালক মীর জয়নুল আবেদীন শিবলী গতকাল সোমবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে এ অভিযোগপত্র জমা দেন। আদালতে দুদকের প্রসিকিউটিং বিভাগের কর্মকর্তা মো. আবদুর রশিদ জানান, এসব মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে মোট ৮০ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে। মহানগর হাকিম আতাউল হকের আদালতে এসব অভিযোগপত্র উপস্থাপন করা হবে বলে জানান তিনি। এর আগে গত ১৭ আগস্ট অভিযোগপত্র অনুমোদন করে দুদক। এদিন দুদকের কমিশনার (তদন্ত) সাহাবউদ্দিন চুপ্পু জানান, সোনালী  ব্যাংকের ১২০০ কোটি টাকা জালিয়াতির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়েছে আসামিদের বিরুদ্ধে।
দুদকের চার্জশিটে অভিযুক্তরা হলেন- হল-মার্কের এমডি  মো. তানভীর মাহমুদ, তার স্ত্রী জেসমিন ইসলাম, তানভীরের ভায়রা ও হল-মার্কের মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমেদ, ম্যাক্স স্পিনিং মিলসের মালিক মীর জাকারিয়া, সেঞ্চুরি ইন্টারন্যাশনালের মালিক মো. জিয়াউর রহমান, কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম, অ্যাপারেল এন্টারপ্রাইজের মালিক মো. শহিদুল ইসলাম, স্টার স্পিনিঙের মালিক আবদুল বাসির। এছাড়া, টি অ্যান্ড ব্রাদার্সের পরিচালক তসলিম হাসান, প্যারাগন গ্রুপের পরিচালক সাইফুল ইসলাম রাজা, নকশী নিটের এমডি  মো. আবদুল মালেক, সাভারের হেমায়েতপুরের  তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জামাল উদ্দিন। সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তাদের মধ্যে রূপসী বাংলা শাখার ব্যবস্থাপক একেএম আজিজুর রহমান, কর্মকর্তা মো. সাইফুল হাসান, আবদুল মতিন ও  মেহেরুন্নেসা মেরি, ননী গোপাল নাথ, মফিজউদ্দিন, মীর মহিদুর রহমান, হুমায়ুন কবির, মাইনুল হক, আতিকুর রহমান, শেখ আলতাফ হোসেন, মো. সফিক উদ্দিন আহমেদ ও মো. কামরুল হোসেন খানের নাম রয়েছে অভিযোগপত্রে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *