স্বামী-স্ত্রী-কন্যাকে কুপিয়ে লুটপাট : প্রতিরোধের মুখে ককটেল বিস্ফোরণ

চুয়াডাঙ্গা জীবননগরের পল্লি মারূফদহ ও খয়েরহুদার দু বাড়িতে ডাকাতদলের হানা

 

জীবননগর ব্যুরো: চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার নিভৃত পল্লি মারুফদহ ও খয়েরহুদা দু গ্রামের এক কৃষক ও এক গৃহিনীর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ৬-৭ জনের মুখোশধারী ডাকাতদল ডাকাতিকালে গৃহকর্তাসহ তার স্ত্রী ও মেয়েকে কুপিয়ে ৭০ হাজার টাকা লুটে নিয়ে পালিয়ে যায়। আহত স্বামী-স্ত্রী ও মেয়েকে উদ্ধার করে রাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। খয়েরহুদায় প্রতিরোধের মুখে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় ডাকাতদল।

হাসপাতালসূত্রে জানা যায়, জীবননগর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের মারুফদহ গ্রামের বাটিকাপাড়ার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে প্রান্তিক কৃষক নবির হোসেনের (৬৫) বাড়িতে রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে ৬-৭ জনের মুখোশধারী ডাকাতদল সশস্ত্র অবস্থায় ঢোকে। এসময় তারা নবিরকে ঘুম থেকে ডেকে তোলে এবং ঘরের ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করলে তারা ডাকাতদলকে বাধা দেয়। এতে ডাকাত দলের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে গ্রহকর্তাসহ স্ত্রী জামেলা খাতুন (৫৫) ও মেয়ে রেক্সনা খাতুনকে (২২) হেঁসো দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে আহত করে ঘরে গচ্ছিত রাখা ৭০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

এদিকে খয়েরহুদা গ্রামের মৃত কালাম গাজীর স্ত্রী রহিমা খাতুনের বাড়িতে ডাকাতদল হানা দিয়ে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ ৫০ হাজার টাকা, দুই জোড়া কানের দুল ও মোবাইলফোন লুট করে।

রহিমা খাতুন বলেন, আমার মেয়ে শিউলী ঢাকায় একটি চাকরি করে। সেখানে থেকে তিন দিন আগে বাড়ি ফেরে। ডাকাতদল বাড়িতে প্রবেশ করে আমার মেয়ের ৫০ হাজার টাকা, সোনার গয়না ও মোবাইলফোন নিয়ে যায়। যাওয়ার সময় আমার ভাইয়ের ছেলে সাইফুলের সাথে ডাকাতদলের ধস্তাধস্তি হয়। এ সময় ডাকাতদল একটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনায়। এতে সাইফুল আহত হয়। সকালে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুটি অবিস্ফোরিত ককটেল উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে জীবননগর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ঘটনাটি আমরা শুনেছি। ভিকটমদের ব্যাপারে খোঁজখবর নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *