স্বস্তির বৃষ্টির পর কাটছে দাবদাহ

স্টাফ রিপোর্টার: জ্যৈষ্ঠের তীব্র গরমের পর অবশেষে এলো একপশলা স্বস্তির বৃষ্টি। গত কয়েক দিনের তাপপ্রবাহে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছিলো নাগরিক জীবন। বয়স্ক ও শিশুদের পাশাপাশি অন্য বয়সের লোকেরাও এই গরমে ছিলেন অতিষ্ঠ। এতে মানুষ বৃষ্টির আকাঙ্ক্ষায় ছিলেন উদ্বেলিত। অবশেষে দেখা মিললো বৃষ্টির। চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ রাজধানী ঢাকাতেও বৃষ্টিপাত হয়েছে বলেও জানা গেছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলের দিকে আকাশ কালো হয়ে যায়। এরপরই ঝড়ো হাওয়ার সাথে অল্প হলেও বৃষ্টি নামে। তবে স্বস্তির এ বৃষ্টি। দমকা ও ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

আবহাওয়া অফিস জানায়, পশ্চিমা লঘুচাপের বাড়তি অংশ সক্রিয় হওয়ায় কোথাও কোথাও বৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে তাপমাত্রা কমে আসছে। লঘুচাপের বর্ধিতাংশ সক্রিয় থাকলে আরো বৃষ্টিপাত হবে। গত কয়েক দিনে বাতাসে জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় চরম অস্বস্তি ছিলো দেশজুড়ে। গরমে পেটের পীড়া, জ্বর, হিটস্ট্রোকের প্রকোপ বেড়েছে। এপ্রিল-মে মাসে স্বাভাবিক নিয়মেই তাপমাত্রা বেশি থাকে। তাপমাত্রা ৩৬ থেকে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে মৃদু তাপপ্রবাহ, ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে মাঝারি তাপপ্রবাহ, ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে তাপমাত্রা থাকলে তীব্র তাপপ্রবাহ ধরা হয়ে থাকে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *