স্ত্রীর পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় শৈলকুপায় প্রবাসী স্বামীকে কুপিয়ে খুন :স্ত্রী ও কথিত প্রেমিক আটক

 

 

ঝিনাইদহ অফিস: স্ত্রীর পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ফারুক হোসেন (৩৮) নামে এক প্রবাসীকে কুপিয়ে খুন করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকালমঙ্গলবার সকালে উপজেলার গাবলা গ্রামে একটি খালের পাশ থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী জ্যোৎস্না বেগম ও তার কথিত প্রেমিক বাচ্চুকে সকাল ১০টার দিকে আটক করা হয়েছে। নিহত ফারুক শৈলকুপা উপজেলার হরিহরা গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে। তিনি শৈলকুপা শহরের সিনেমা হল রোডের বাসিন্দা ছিলেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন ধরে ফারুক আবুধাবি থাকতেন। প্রবাস জীবন কাটিয়ে পাঁচ মাস আগে তিনি দেশে ফেরেন। গত সোমবার ইফতারের পর মোটরসাইকেলে করে বাড়ি থেকে বের হন ফারুক। রাতে আর বাড়ি ফেরেননি। মোবাইলফোন বন্ধ পাওয়ায় সারারাত খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। মঙ্গলবার সকালে গাবলা গ্রামের খালের পাশে একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে গ্রামবাসী পুলিশকে খবর দেয়। এ সময় লাশের পাশে তার মোটরসাইকেলটিও পড়ে থাকতে দেখা যায়। নিহতের দেহে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সোমবার রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে খুন করেছে বলে ধারণা পুলিশের। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালমর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

দীর্ঘদিন প্রবাস জীবনযাপন করায় তার স্ত্রীর সাথে বাচ্চু মিয়ার অবৈধ সম্পর্ক গড়ে উঠেছিলো। ফারুক বাড়ি আসার পর তার স্ত্রীর সাথে তার ভালো সম্পর্ক তৈরি হচ্ছিলো না। বাচ্চুকে নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায় ঝগড়া হয়। তার পরিবারের ধারণা তার স্ত্রী এবং বাচ্চু মিলে তাকে খুন করে থাকতে পারে। নিহত ফারুকের শিমু ও ইমা নামে দুটি কন্যাসন্তান রয়েছে। নবম শ্রেণির ছাত্রী শিমু জানায়, বিদেশ থেকে এসে তার বাবা বাড়িতে পাকাঘর নির্মাণ করছিলেন। শৈলকুপা থানার ওসি ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, নিহত ফারুকের স্ত্রী জ্যোৎস্না বেগম ও তার কথিত প্রেমিক বাচ্চু পুলিশি হোফাজতে রয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় শৈলকুপা থানায় একটি হত্যামামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *