স্কুলের শিক্ষকদের মারের ভয় ও মায়ের বকুনি খেয়ে জানালায় রশি বেঁধে হাজরাহাটির শিশু শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

 

 

স্টাফ রিপোর্টার: মায়ের বকুনি খেয়ে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী শিশু আঁখিতারা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গার হাজরাহাটি গ্রামে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। পরীক্ষার ফলাফল খারাপ করার কারণে মা তাকে বকুনি দেয়ায় সে মায়ের ওপর অভিমান করে জানালার সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। তার এ আত্মহত্যার পর গ্রামজুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে।

গ্রামসূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকাধীন হাজরাহাটি মাঝেরপাড়ার কৃষক আহাদ আলীর মেয়ে আঁখিতারা স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী। তার দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ফলাফল খারাপ হওয়ায় মা বকাঝকা করেন। কেউ কেউ বলেছেন আঁখিতারার গালে থাপ্পড়ের দাগ আছে। তার মা হয়তো চড়থাপ্পড় মেরে থাকতে পারেন। এ কারণে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে একটি ওড়না ও সুতোলি দড়ি একত্র করে নিজঘরের জানালার সাথে গলায় বেঁধে আঁখিতারা (৯) আত্মহত্যা করে। এলাকাবাসী জানায়, আঁখিতারার মা রান্নাঘরে যখন রান্নাবাড়া নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন ঠিক সে সময়ে জানালার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করে।

আঁখিতারার কয়েকজন সহপাঠী জানায়, পরীক্ষার রেজাল্ট খারাপ করলে স্কুলে গেলে স্যাররা মারেন। শিক্ষকদের মারধরের ভয়ে আঁখিতারা আত্মহত্যা করেছে কি-না এ প্রশ্নও তোলে গ্রামের কয়েকজন। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আঁখিতারাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। তার লাশ হাজরাহাটি গ্রামে নেয়া হলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *