সীমান্তবর্তী মাটিলা বাজারে বিজিবির গুলিতে গরুব্যবসায়ী নিহত : দুজন আহত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্তে বিজিবি-গরু চোরাচালানীদের সাথে সংঘর্ষকালে বিজিবির গুলিতে রফিকুল ইসলাম নামে এক গরুব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো দুজন গুরুতর আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় মহেশপুর উপজেলার জুলুলি সীমান্তের মাটিলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।
মহেশপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশাফুর রহমান গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ৯ টায় জানান গোলাগুলির ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছেন। পরে রাত সোয়া ১১টায় তিনি পুণরায় জানান, প্রথমে একজন মারা যায়। এরপর আহত আরো একজনের মৃত্যুর খবর শোনা যায়। কিন্তু পরে জানতে পারলাম তিনি মারা যাননি। গুলিতে আহতরা হলেন, আজিবর হোসেনের ছেলে বাবলু মিয়া ও মথে মালিথার ছেলে রবিউল ইসলাম। সংঘর্ষের পর এলাকায় টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য নবী নেওয়াজ ও যশোর বিজিবির ২৬ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল জাহাঙ্গীর হোসেন এলাকাবাসীর সাথে বৈঠক করছেন। বিজিবি জানায়, একদল গরুব্যবসায়ী ভারত থেকে গরু এনে সন্ধ্যা ৭টার দিকে মাটিলা বাজারে পৌঁছুলে বিজিবি সদস্যরা তাদের পথ আটকায়। এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। আশপাশের লোকজনও গরুব্যবসায়ীদের সাথে যোগ দিয়ে বিজিবির ওপর হামলা চালালে বিজিবি সদস্যরা গুলি চালায়।
যশোর বিজিবির ২৬ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে একজনের মৃত্যু হয়। আহত হন আরো তিনজন। স্থানীয় সংসদ সদস্য নবী নেওয়াজ বলেন, আমার এলাকার সাধারণ দোকানদার ১ জন মারা গেছে। অথচ যারা চোরাচালানীর সাথে জড়িত তাদের কিছুই হয়নি। তবে এলাকাবাসীর দাবি, শনিবার সন্ধ্যায় জলুলি বিজিবি ক্যাম্পের পাশের চায়ের দোকানে গ্রামবাসী বসে গল্প করছিলেন। এ সময় বিজিবি সদস্যরা তাদেরকে সেখান থেকে চলে যেতে বলেন। এ নিয়ে বাদানুবাদের এক পর্যায়ে বিজিবির সাথে গ্রামবাসী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় বিজিবি গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই রফিকুল নিহত হন।
বিজিবি ২৬ ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার লে.কর্নেল জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, সন্ধ্যায় সীমান্তের জলুলী বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা মাটিলা সীমান্তে টহল দিচ্ছিলেন। সে সময় ভারত থেকে অবৈধভাবে একদল গরুব্যবসায়ী গরু নিয়ে বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা করে। সীমান্তে টহলরত বিজিবি সদস্যরা তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করলে গরু ব্যবসায়ীরা বিজিবি সদস্যদের ওপর ইট-পাটকেল, লাঠিসোঁটা ও রামদা নিয়ে হামলা চালায়। এ সময় বিজিবি সদস্যরা আত্মরক্ষার্থে ৩ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। মহেশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাহিদুল ইসলাম শাহীন গরুব্যবসায়ী রফিকুল ইসলামের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় আরো ৩/৪ আহত হয়েছেন এমন খবর শুনেছি। ঘটনাস্থল থেকে বিজিবি বেশ কয়েকটি গরু, রামদা ও লাঠি উদ্ধার করেছে।
মহেশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম শাহিন খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গুলিতে আমরা একজনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। আজ জলুলী সীমান্তে গোলাগুলি হয়েছে। এদিকে গুলিতে তিন গ্রামবাসী হতাহতের ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *