সিনহার আবার দায়িত্ব গ্রহণ সুদূর পরাহত

স্টাফ রিপোর্টার: রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, বাস্তব অবস্থা বিবেচনা করলে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিদেশ সফর শেষে ফিরে এসে দায়িত্ব গ্রহণ সুদূর পরাহত ব্যাপার।
তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্টের বিবৃতির মাধ্যমে প্রধান বিচারপতি সিনহাকে নিয়ে সব বিভ্রান্তির অবসান হয়েছে, দেশবাসী প্রকৃত ঘটনা জানতে পেরেছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় নিজ কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ সব কথা বলেন। মাহবুবে আলম বলেন, প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে বেঞ্চে বসার ব্যাপারে সরকার বিরত করেনি, বরং তার বিরুদ্ধে বেশকিছু সুনির্দিষ্ট অভিযোগ উঠায় তার সহকর্মীরা তার সঙ্গে বসতে রাজি হননি বলে তিনি ছুটি নিতে বাধ্য হয়েছেন। তিনি আরও বলেন, দেশবাসীর এটাই জানা উচিত যে, প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে বেঞ্চে বসার ব্যাপারে সরকার বিরত করেনি, বরং তিনি ছুটি নিতে বাধ্য হয়েছেন। তিনি প্রধান বিচারপতির লিখিত বক্তব্যকে বিভ্রান্তকর বলেও উল্লেখ করে বলেন, সুপ্রিম কোর্টের বিবৃতিই প্রমাণ করে প্রধান বিচারপতি লিখিত বক্তব্যে যা বলেছেন তা সঠিক নয়। এর আগে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে দেশ ছাড়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তার বক্তব্যকে বিভ্রান্তিকর বলে পাল্টা বিবৃতি দিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট। শুক্রবার রাতে দেশত্যাগের আগে বাসভবনের সামনে সাংবাদিকদের প্রধান বিচারপতি জানান, আমি অসুস্থ না, আমি ভালো আছি, আমি পালিয়েও যাচ্ছি না। আমি আবার ফিরে আসবো। আমাকে ছুটিতে যেতে বাধ্য করা হয়নি। আমি নিজে থেকেই ছুটি নিয়েছি। তিনি আরও বলেন, আমি একটু বিব্রত, আমি বিব্রত। আমি বিচার বিভাগের অভিভাবক। আমি চাই না, বিচার বিভাগ কলুষিত হোক। বিচার বিভাগের স্বার্থে আমি সাময়িকভাবে যাচ্ছি। কারো প্রতি আমার কোনো বিরাগ নেই। বিচার বিভাগ স্বাধীন থাকুক, এটাই আমি চাই। এর পরিপ্রেক্ষিতে পরের দিন গতকাল শনিবার সুপ্রিমকোর্ট একটি বিবৃতি আকারে বিজ্ঞপ্তি দেয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *