সফল লাউচাষি মেহেরপুরের ইউনুচ আলী

 

মহাসিন আলী:লাউচাষ করে লাখপতি হয়েছেন মেহেরপুর শহরের মণ্ডলপাড়ার ইউনুচ আলী। এবছর তিনি আড়াই বিঘা জমিতে লাউচাষ করেছেন। একদিন বাদে একদিন তার ক্ষেত থেকে উঠছে প্রায় ৫শ’ লাউ। যার প্রতিটির পাইকারি মূল্য ২০ টাকা। তার ক্ষেতের লাউ যাচ্ছে ঢাকার বাজারে। ঢাকার বাজারে প্রতিটি লাউ বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকায়।

মেহেরপুর জেলা শহরের মন্ডলপাড়ার আইয়ূব নবী’র ছেলে কৃষক ইউনুচ আলী। প্রাইমারি স্কুলের গন্ডি পেরিয়ে লেখাপাড়া তার ভালো লাগেনি। মাটিতে সোনা ফলানো তার প্রবল ইচ্ছা। তাই তিনি কৃষিকাজের প্রতি ঝুঁকে পড়েন। বর্তমানে তিনি সফল চাষি হিসেবে সকলের কাছে পরিচিত। এবছর তিনি নিজের ১৮ বিঘা ও অন্যের নিকট থেকে লিজ নেয়া আরো ৯ বিঘা জমিতে ধান, পাট, শশা, কচু ও লাউচাষ করেছেন। গেলো বছর ২ বিঘা জমিতে লাউ চাষ করে প্রচুর লাভ পেয়েছেন তিনি। এবছর তিনি আড়াই বিঘা জমিতে লাউচাষ করেছেন। গত বছর ২বিঘা জমিতে ৫০ হাজার টাকা খরচ করে তিনি দেড় লাখ টাকার লাউ বিক্রি করেছিলেন।

মেহেরপুর শহর থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের পাশে মদনাডাঙ্গা টেকনিক্যাল কলেজ এলাকার মাঠে গিয়ে দেখা যায় ইউনুচ আলী তার ক্ষেত থেকে লাউ কাটছেন। লেবার ছাড়াও তার পাশে ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার চাড়ুলিয়া গ্রামের দুজন ব্যবসায়ী। তাদের একজন জমিরউদ্দিন ও অপরজন বদরউদ্দিন। ঢাকার বাজারে পাঠানোর জন্য তারা ইউনুচ আলীর নিকট থেকে একদিন পরপর পাইকারি দামে লাউ কিনতে আসেন বলে জানা গেলো।

ইউনুচ আলী জানান, তিনি বৈশাখ মাসে লাউচাষ করেছেন। ইতোমধ্যে প্রায় ৫০ হাজার টাকার লাউ বিক্রি করেছেন তিনি। তার ক্ষেত থেকে লাউ বিক্রি করা যাবে আশ্বিন মাস পর্যন্ত। তিনি জানালেন, সুতালী, তার, বাঁশ, বীজ, সার, পানি সেচ ও লেবার খরচসহ সমুদয় চাষ খরচ বাবদ তার এ পর্যন্ত ৩০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এরপরও আশ্বিন মাস পর্যন্ত লেবার ও সার খরচ বাবদ আরো ২০ হাজার টাকা খরচ হতে পারে। তিনি জানলেন, ততোদিনে তিনি আরো একলাখ টাকার লাউ বিক্রি করতে পারবেন বলে আশা করেন। তিনি আরো বলেন, গত বছর ২ বিঘা জমি থেকে তিনি দেড় লাখ টাকার লাউ বিক্রি করেন। যেখানে তার আবাদ খরচ বাবদ ব্যয় হয়েছিলো ৬০ হাজার টাকা।

ক্রেতা জমিরউদ্দিন ও বদরউদ্দিন জানালেন, তারা একদিন পরপর ইউনুচ আলীর ক্ষেতের ৪শ’ থেকে ৫শ’ লাউ কিনে নিয়ে যান। তারা প্রতিটি লাউ ২০ টাকায় কেনেন। কেনা লাউয়ের ৩০টি করে একেকটি কার্টুন ভর্তি করেন। এরপর আলগামনে করে মেহেরপুর শহরে নিয়ে অন্যান্য মালের সাথে ট্রাক ভর্তি করে ঢাকা পাঠান। ঢাকায় প্রতিটি লাউ ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.