সন্ধান মেলেনি দামুড়হুদায় নিখোঁজ এক ছাত্র ও ৩ ছাত্রীর

 

বখতিয়ার হোসেন বকুল: দামুড়হুদার বৃক্ষমেলা থেকে নিখোঁজ স্কুলছাত্র সজীবসহ কলেজছাত্রী সোহানা এবং দুই মাদরাসাছাত্রী রেখা ও দোলনের এখনও হদিস মেলেনি। পুলিশ বলেছে নিখোঁজ কলেজছাত্রী সোহানাকে অপহরণের অভিযোগে বায়েজিদ নামের এক ছাত্রকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর দু মাদরাসাছাত্রী কিশোরী রেখা ও দোলনের কাছে কোনো মোবাইলফোন না থাকায় তাদের অবস্থান এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে নিখোঁজ স্কুলছাত্র সজীবের মোবাইলফোন ট্রাকিঙের মাধ্যমে তার অবস্থান সম্পর্কে কিছুটা নিশ্চিত হওয়া গেলেও তার পরিবারের লোকজন পুলিশের সহযোগিতা ছাড়াই নিজেরা নিখোঁজ সজীবকে খুঁজে বের করতে চাচ্ছেন বলে পুলিশের কাছে প্রতীয়মান হয়েছে। তাছাড়া তারা এখনও পর্যন্ত থানায় কোনো মামলাও করেনি।

এদিকে দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদ চত্বরের বৃক্ষমেলা প্রাঙ্গণ থেকে এক স্কুলছাত্র, কাদিপুর থেকে কলেজে আসার পথে এক কলেজছাত্রী এবং হঠাতপাড়া থেকে দুই মাদারাসাছাত্রী নিখোঁজ হয়। এই ৪ শিক্ষার্থী নিখোঁজের পর থেকে তাদের হদিস না মেলায় এলাকাবাসীর মধ্যে নানা প্রশ্ন উঁকি দিতে শুরু করেছে। তাদের নিখোঁজের পেছনে কী রহস্য লুকিয়ে রয়েছে তা জানতে ব্যাকুল হয়ে উঠেছে এলাকার কৌতূহলী মানুষ। বিশেষ করে দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদ চত্বরের বৃক্ষমেলা থেকে স্কুলছাত্র সজীবের নিখোঁজের ঘটনাটি এলাকার অভিভাবক মহলকে ভাবিয়ে তুলেছে। তাদের প্রশ্ন সজীব কি পরিবারের কারোর ওপর অভিমান করে নিজেই বাড়ি ত্যাগ করেছে, না কি তাকে সত্যিই অপহরণ করা হয়েছে?

সজীবের মা মাহবুবা খাতুন কিছুটা জোর দিয়েই বলেছেন, তাকে অপহরণ করা হয়েছে। সে পরিবারের কারো ওপর অভিমান করে বাড়ি ছাড়েনি। তিনি আরও জানিয়েছেন, ছেলেকে জীবিত ফিরে পেতেই আমরা এখনও মামলা করিনি। তাছাড়া আমরা তার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু সজীবের মোবাইলফোন বেশিরভাগ সময়ই বন্ধ থাকছে। দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি আবু জিহাদ বলেছেন, নিখোঁজ স্কুলছাত্র সজীবসহ অপর ৩ ছাত্রীকে খুঁজে বের করতে জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। খুব শিগগিরই তাদের সন্ধান পাওয়া যাবে বলে তিনি আশা করেন।

উল্লেখ্য, দর্শনা হঠাতপাড়ার আশরাফুল আলম বাবুর মেয়ে দর্শনা ডিএস ফাজিল মাদরাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী রেখা (১৫) ও তার ফুপাতো বোন দোলন (১৬) ঈদের ৩ দিনপর ১০ জুলাই রাত ৮টার দিকে দর্শনা হঠাতপাড়া থেকে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজের ২২ দিনের মাথায় রেখার দাদা ভ্যানচালক আবুল হোসেন এ সংক্রান্তে দামুড়হুদা থানায় জিডি করেন। এরপর গত ২৯ জুলাই রাত সাড়ে ৯টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদ চত্বরের বৃক্ষমেলা থেকে নিখোঁজ হয় দামুড়হুদা ব্রিজপাড়ার মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে চুয়াডাঙ্গা ভি.জে স্কুলের ৮ম শ্রেণির ছাত্র সজীব। পরদিন ৩০ জুলাই দামুড়হুদা আব্দুল ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী সোহানা নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় কুঁনিয়া গ্রামের ছমির উদ্দিনের ছেলে কুষ্টিয়ায় কোচিংরত ছাত্র বায়েজিদ তার মেয়েকে অপহরণ করেছে মর্মে বাবা কাদিপুরের ফজলুল হক বাদী হয়ে দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় কলেজছাত্র বায়েজিদ বর্তমানে জেলহাজতে রয়েছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *