সকল জেলায় শিশু আদালত হবে

 

স্টাফ রিপোর্টার: দেশের প্রতিটি জেলায় শিশু আদালত প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট স্পেশাল কমিটি ফর চাইন্ড রাইটসের (এসসিএসসিসিআর) চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলী। গতকাল শনিবার চট্টগ্রামে শিশু আইন ২০১৩- বাস্তবায়ন বিষয়ক বিভাগীয় পরামর্শ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ তথ্য প্রকাশ করেন।

বিচারপতি ইমান আলী বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে শিশুদের মধ্যে অপরাধ প্রবণতা বেড়ে গেছে। কথিত সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী বড় ভাইয়েরা টাকার বিনিময়ে অসহায় শিশুদের দিয়ে ব্যাগে করে অস্ত্র ও মাদক সরবরাহের কাজে ব্যবহার করাচ্ছে। ব্যাগে কি আছে তা এসব শিশুরা জানে না। পেটের তাগিদে বড় ভাইদের কথায় টাকার বিনিময়ে তারা এ কাজ করে যাচ্ছে। এ ধরনের শিশুরা কখনো অপরাধী হতে পারে না। অস্ত্র, বোমা ও মাদক সরবরাহের মূল অপরাধী কে তা যাচাই না করে শিশুদের বিনাদোষে গ্রেফতার দেখিয়ে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। থানা কিংবা আদালতে শিশুদেরকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, শিশু অপরাধ সংক্রান্ত যে সকল মামলা আদালতে যায় সেগুলোর মধ্যে প্রায় ৯৩ শতাংশ মামলার আসামি নির্দোষ প্রমাণিত হয়ে খালাস পায়। এসব কিছু বিবেচনায় এনে সরকার শিশু আইন-২০১৩ প্রণয়ন করেছে। আদালতে অন্য আসামিদের সাথে শিশুদের রাখা যাবে না। শিশু আইনে দায়ের করা মামলাগুলোর মধ্যে ৭৫ শতাংশ মামলা থানায় বসে নিষ্পত্তি করা যেতে পারে। ৫০ শতাংশ মামলা নিষ্পত্তি করতে পারলে শিশু আদালতে মামলার জট কমে আসবে।

সভায় বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ বলেন, শিশু আইনে দায়েরকৃত মামলাগুলো সর্বোচ্চ ৪২০ দিনের মধ্যে নিষ্পতি করতে হবে। মামলার স্বার্থে শিশুদেরকে আদালতে প্রেরণকালে কোমরে কোনো ধরনের রশি বা লোহার বেড়ি পরানো যাবে না। আদালতে শিশু আসামিদেরকে অন্য মামলার আসামিদের সাথে রাখা যাবে না।

চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে এসসিএসসিসিআর, বিভাগীয় কমিশনার অফিস ও ইউনিসেফ বাংলাদেশ আয়োজিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. রুহুল আমীন। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন এসসিএসসিসিআর-এর সদস্য হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ, জেলা ও দায়রা জজ মো. হেলাল চৌধুরী, মহানগর দায়রা জজ মো. শাহেনুর।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *