শ শ বিঘা বোরোধান জিকে ক্যানালের পানির নিচে : আড়ালে পানিচোর?

চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার বাদেমাজু-বিনোদপুর মাঠে কলকলিয়ে ঢুকছে পানি : বোরোচাষিদের মাথায় হাত

 

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার বাদেমাজু-বিনোদপুর গ্রামে জিকে ক্যানালের পানিতে কৃষকের সদ্য রোপণকৃত  শ শ বিঘা বোরো ধানক্ষেত তলিয়ে গেছে। ওয়াপদার কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ম্যানেজ করে আলমডাঙ্গার বাদেমাজু-বিনোদপুরের কিছু অসৎ ব্যক্তি জিকে ক্যানালের পানি রাতভর চুরি করে পুকুরে পুকুরে নেয়। ঢোকায়। ওই সকল পুকুর উপচে পানি পার্শ্ববর্তী মাঠের ফসল ভাসিয়েছে। এতে শ’ শ’ বিঘা জমির ফসল নষ্ট হওয়ায় সংশ্লিষ্ট কৃষকরা এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে সোচ্চার হয়ে উঠেছে।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার বাদেমাজু-বিনোদপুর গ্রামে জিকে ক্যানালের পাশে মাঠের পানি বের হয়ে যাওয়ার নিচু জমি দখল করে কিছু সুবিধাবাদী ব্যক্তি পুকুর কেটেছে মাছ চাষের জন্য। অভিযোগ উঠেছে, ওয়াপদার কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারীর সাথে অবৈধভাবে সম্পর্ক করে এ ক্যানালের পানি রাতে চুরি করে পুকুরে ঢুকিয়ে নিচ্ছে। এতে পানি উপচে পার্শ্ববর্তী মাঠ প্লাবিত হচ্ছে। ইতোমধ্যে কৃষকের সদ্য রোপণকৃত শ’ শ’ বিঘা বোরো ধানক্ষেত পানিতে ডুবে গেছে।

সংশ্লিষ্ট মাঠের কৃষক আকরাম হোসেন, দানেশ, মুক্তার হোসেন, মতিয়ার, মহাসিন, জয়নাল, নজরুল ইসলাম, বাদল হোসেনসহ অনেকে এ হঠকারী অপকর্মে জড়িতদের শাস্তি দাবি করেছেন। এদের অনেকে অভিযোগ তুলেছেন, গ্রামের ইউপি মেম্বার খেদ আলীর বিরুদ্ধেও। খেদ আলী পুকুর মালিকদের নিকট থেকে উৎকোচ নিয়ে অবৈধভাবে পুকুরে পানি দিয়েছে বলে তাদের অভিযোগ। অভিযুক্ত খেদ আলী সে অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, পানি ছাড়ার স্লুইসগেটের হ্যান্ডেল থাকে ওয়াপদার কর্মচারী আনোয়ার হোসেনের নিকট। পানি ছাড়তে হলে ওয়াপদার এসও শাহাবুদ্দীনের অনুমতি লাগে। গ্রামের প্রতিপক্ষ তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছে বলে তিনি জানিয়েছেন। তবে বিক্ষুব্ধ কৃষকেরা ওয়াপদার অভিযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধেও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি তুলেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *