শুক্রবার থেকে শুরু পবিত্র রমজান

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে আগামীকাল শুক্রবার থেকে পবিত্র রমজান শুরু হবে। আগামী ১৪ জুলাই দিবাগত রাতে পবিত্র লাইলাতুল কদর পালিত হবে। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশন সভাকক্ষে চাঁদ দেখা কমিটির এক বৈঠক শেষে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, বাদ মাগরিব সভাকক্ষে আলোচনায় বসেন চাঁদ দেখা কমিটির সদস্যরা। বৈঠকে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি আলহাজ প্রিন্সিপাল মতিউর রহমান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সদস্য সচিব সামীম মোহাম্মদ আফজাল, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব মাওলানা মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া ধর্ম সচিব চৌধুরী মো. বাবুল হাসান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা তছির আহাম্মদ, আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক মো. শাহ আলমসহ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য মন্ত্রণালয়, স্পারসো, ঢাকা জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি সভায় উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে ধর্মমন্ত্রী জানান, সকল জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, আবহাওয়া অধিদফতর, মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী বাংলাদেশের কোথাও হিজরি ১৪৩৬ সনের রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তিনি জানান, শুক্রবার থেকে পবিত্র রমজান শুরু হবে। আর সেহেরি খেতে হবে আজ বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত থেকে। ১৪ জুলাই মঙ্গলবার দিবাগত রাতে শবে কদরের দিন ধার্য করা হয়।

ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের কাছে রমজান সংযম, আত্মশুদ্ধি ও ত্যাগের মাস। রমজান রহমত (আল্লাহর অনুগ্রহ), মাগফেরাত (ক্ষমা) ও নাজাত (দোজখের আগুন থেকে মুক্তি)- এ তিন অংশে বিভক্ত। এ মাসে সুবেহ সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার ও স্ত্রী-সহবাস থেকে বিরত থাকার মাধ্যমে রোজা পালন করেন মুসলমানরা। এ মাসের শেষ অংশে রয়েছে হাজার মাসের এবাদতের চেয়েও উত্তম লাইলাতুল কদরের রাত। ইসলাম ধর্ম অনুযায়ী এ মাসে প্রতিটি নেক আমলের সওয়াব আল্লাহ ৭০ গুণ বাড়িয়ে দেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *