শীতে জবুথবু মানুষ : দুস্থ শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ জরুরি চুয়াডাঙ্গায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা

স্টাফ রিপোর্টার: কনকনে শীত আর হিমেল হাওয়ায় কাবু হয়ে পড়েছে চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুরসহ পার্শ্ববর্তী এলাকার মানুষ। তীব্র শীতে শহর ও গ্রামের দুস্থদের অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোয়াতে হচ্ছে। গতকালও দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো চুয়াডাঙ্গায় ৮ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। জানুয়ারির প্রথম সপ্তায় মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস রয়েছে। চুয়াডাঙ্গা কুষ্টিয়া ও পাবনার ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে আজ সকাল ৯টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ এবং তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত। স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকায় মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। পাবনা, যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চলের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

চুয়াডাঙ্গায় গতকাল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২১ দশমিক ৬ এবং সর্বনিম্ন ৮ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। গতরাতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা আরো হ্রাস পেয়েছে তবে তার পারদ গতরাত তিনটায় কোন পর্যায়ে নেমেছে তা জানা যায়নি। তীব্রশীতে জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। আবহাওয়া অফিসসূত্র বলেছে, শীতের তীব্রতা আরো বাড়বে। ফলে দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণের বিশেষ উদ্যোগ সর্বমহল থেকেই নেয়া জরুরি হয়ে পড়েছে। সিঙ্গাপুর প্রবাসী সাহেদুজ্জামান টরিকের ছোটভাই শরিফুজ্জামান শরিফ গতকাল আলমডাঙ্গার বেশ কয়েকটি এলাকায় প্রচুর পরিমানে শীতবস্ত্র বিরতণ করেন। সাথে ছিলেন এলাকার জনপ্রতিনিধিরা। শীতবস্ত্রের অভাবে অনেকেই রাত কাটাচ্ছেন চুলার পাড়ে। কেউ কেউ বাড়ির পাশে আগুন জ্বালিয়ে উষ্ণতা নিয়ে স্বস্তি খুঁজছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *