শিশু নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেফতার ডা. রত্না ও স্বামী রেজাউলের জামিন নামঞ্জুর

স্টাফ রিপোর্টার: শিশু গৃহপরিচারিকা নির্যাতনকারী ডা. রত্না ও স্বামী রেজাউলের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল রোববার তাদের পক্ষের কৌঁসুলিরা জামিন আবেদন করলে তা নাকচ করে দেন বিজ্ঞ আদালত। এদিকে নির্যাতনের শিকার শিশু আসমাউল হুসনা আসমা ওরফে হুসনার পক্ষে আরো একটি মামলা হবে বলে জানিয়েছেন অ্যাড. মানি খন্দকার।

সূত্র জানায়, চুয়াডাঙ্গা রেলপাড়ার প্রফেসর শমসের আলীর মেয়ে ডা. জান্নাতুল বাকী জান্নাত রত্না ও তার স্বামী প্রকৌশলী মো. রেজাউল করিমের ঢাকার ধানমণ্ডি এলাকার বাসায় কয়েক মাস ধরে নির্যাতনের শিকার হয় চুয়াডাঙ্গা বিএডিসির শ্রমিক শহিদুল ইসলামের মেয়ে আসমাউল হুসনা (৯) । তাকে গৃহপরিচারিকা হিসেবে ঢাকায় নিয়ে কিছুদিনের মাথায় শুরু হয় অমানুষিক নির্যাতন। কারণে অকারণে ডা. রত্না তার ওপরে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানুষিক নির্যাতন করেন। শরীরে ছ্যাঁকা দেয়া হতো গরম খুন্তি, চামচ বা কড়াইয়ের।

গত বুধবার সন্ধ্যায় ডা. রত্না ও তার স্বামী রেজাউলকে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ গ্রেফতার করে। পরদিন বৃহস্পতিবার তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দেন। গতকাল রোববার তাদের দুজনের জামিন আবেদন করা হয় আদলতে। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ক অঞ্চলের বিজ্ঞ বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল হালিমের আদালতে আসামি পক্ষের আইনজীবীদের করা জামিন আবেদন নামঞ্জুর করা হয়। বাদী পক্ষের আইনজীবী মানি খন্দকার তাদের জামিন আবেদনে বাধা দেন। তিনি মাথাভাঙ্গাকে বলেন আসামিদের বিরুদ্ধে শিশু আইনে আরেকটি মামলার চিন্তাভাবনা চলছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *