শিশুকন্যার মুখে বিষ দিয়ে মা আরিফার বিষপান

 

স্বামী বিয়ের আংটি বিক্রি করায় স্ত্রীর আপত্তি : রাতভর ঝগড়া

 

স্টাফ রিপোর্টার: বাপের বাড়ি থেকে আনা টাকাসহ মালামালের প্রায় সবই বিক্রি করেছে উড়নচণ্ডি স্বামী। আশীর্বাদের আংটিটাও বিক্রি করায় অভিমানী আরিফা খাতুন তার দেড় বছরের শিশুকন্যাকে বিষ খাইয়ে নিজেও বিষপান করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে আলমডাঙ্গার নতিডাঙ্গা গ্রামে। মা-মেয়ে দুজনকেই উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আরিফা আশঙ্কামুক্ত হলেও শিশুকন্যা জান্নাতুলের অবস্থা গুরুতর।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার নতিডাঙ্গা গ্রামের মিনাজ উদ্দীনের ছেলে সুজনের সাথে আনুনামিক তিন বছর আগে ছোটপুটিমারীর আফিল উদ্দীনের মেয়ে আরিফার বিয়ে হয়। বিয়ের দেড় বছরের মাথায় আরিফার কোলে আসে ফুটফুটে এক কন্যাসন্তান। তার নাম রাখা হয় জান্নাতুল। ওর বয়স এখন দেড় বছর। আরিফা খাতুনের শয্যাপাশে থাকা লোকজন বলেছে, বিয়ের সময় আরিফার সুখের কথা ভেবে তার পিতা নগদ ৬০ হাজার টাকা, একটি মোবাইলফোনসহ সংসারের খুটিনাটি অনেক কিছুই দেন। আরিফার স্বামী সুজন নগদ টাকা নষ্ট করেছে। সর্বশেষ সে বিয়ের সোনার আংটিটি বিক্রি করায় গত রোববার রাতে ঝগড়া শুরু করে আরিফা খাতুন। গতকাল সকালে অভিমানী আরিফাকে তার শাশুড়িসহ অনেকেই কটু কথা বলে। এরই এক পর্যায়ে আরিফা তার কোলের শিশু সন্তানের মুখে বিষ তুলে দিয়ে নিজেও আত্মহত্যার জন্য বিষপান করে। বিষয়টি জানাজানি হলে পরিবারের সদস্যরা মা-মেয়েকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়। শিশুর মুখে বিষ তুলে দেয়ার খবর চাওর হলেও গতরাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পুলিশের তরফে তেমন কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *