শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে জমকালো আয়োজনে ইত্যাদির শুটিং সম্পন্ন

 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: বিটিভির জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদি। সব সময়ই জমকালো আয়োজনে পরিবেশিত হয় সকলের প্রিয় অনুষ্ঠান ইত্যাদি। তবে ইত্যাদি ঢাকার বাইরে করা হয়ে থাকে বেশ কয়েক বছর ধরে। গত সোমবার রাতে ইত্যাদির দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে কুষ্টিয়া কুমারখালীর রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে। বিশাল সেটে প্রায় কয়েক হাজার দর্শকের উপস্থিতিতে ধারণ করা হয়েছে ইত্যাদির এবারের পর্ব। টেলিভিশন অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে এবারই বিশাল মঞ্চে শতাধিক শিল্পীর উপস্থিতি ছিলো মনোমুগ্ধকর। বরাবরের মতো এবারও ইত্যাদি শুরু করা হয়েছে রবীন্দ্রসঙ্গীত ও লালনগীতি গানের মধ্য দিয়ে। একটি বিশেষ পর্বে লালনগীতির গানে কন্ঠ দিয়েছেন এসআই টুটুল ও বাউল শিল্পী ওস্তাদ শফি মণ্ডল। সঙ্গীতে অংশগ্রহণ করেন লালন একাডেমির শিল্পীরা। শুধু ধারণস্থানের পরিবর্তনই নয়, প্রায় দু যুগ ধরে ইত্যাদিতে বিদেশি নাগরিকদের দিয়ে আমাদের লোকজ সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে তুলে ধরা হচ্ছে। কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেনের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠানকে আরও প্রাণবন্ত করে তোলে।

ইত্যাদির একটি ব্যতিক্রমী পর্ব ও আমন্ত্রিত দর্শকদের অংশগ্রহণে তিনজন দর্শকের সাথে উপস্থাপনা করেছেন কুষ্টিয়ার কৃতীসন্তান নাট্য পরিচালক মাসুম আজিজ, নাট্যনির্মাতা, নাট্য পরিচালক ও অভিনেতা সালাহউদ্দিন লাভলুসহ অভিনেত্রী আলভী। নানান তালে ও সুরে এ ধরনের ব্যতিক্রমী গানে কণ্ঠ দেয়া অত্যন্ত কষ্টসাধ্য হলেও ছন্দে সুরে নির্মিত এ পর্বটিতে শিল্পীরা যার যার চরিত্রে নিজেই কণ্ঠ দিয়েছেন। ইত্যাদিতে সব সময়ই একটি বিশেষ নাচ থাকে। এবারের নৃত্যে রবীন্দ্রসঙ্গীতের পরিচিতি বহন করে এমন সুরের মিউজিক দিয়ে দুটি ভিন্ন ধারার নাচকে সমন্বয় করা হয়েছে। এবার ইত্যাদির এ নৃত্যে অংশগ্রহণ করেছেন কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমিসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের শতাধিক নৃত্যশিল্পী যাদের নৃত্যের ছন্দ গ্যালারির হাজার হাজার দর্শককে মুগ্ধ করেছে। নানি-নাতির কৌতুক বেশ হাসির আর আনন্দের খোরাক জুগিয়েছে হাজারো দর্শকের।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *