শিক্ষা সফরের বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে : ৭ শিশু শিক্ষার্থী নিহত

0
44

মুজিবনগর থেকে ফেরার সময় মহেশপুর-চৌগাছা সড়কের ঝাউতলায় পিচ্ছিল পথে ডাটা দেখে হঠাত ব্রেক : বিপত্তি

 

স্টাফ রিপোর্টার: মেহেরপুর মুজিবনগরে শিক্ষাসফর শেষে বাড়ি ফেরার পথে দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে যশোর শার্শা বেনাপোল গাজীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৭ শিশু শিক্ষার্থী। আহত হয়েছে ৪৭জন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ৭ শিশুকে যশোর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

গতরাত সাড়ে ৮টার দিকে মহেশপুর-চৌগাছা সড়কের কাদবিলা গ্রামের ঝাউতলা নামক স্থানে শিক্ষক ও শিশু শিক্ষার্থীদের বহন করা বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে পড়ে। ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ৭ শিশু শিক্ষার্থী। আহতদের আর্তচিৎকারে এলাকা প্রকম্পিত হয়ে ওঠে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ও যশোর হাসপাতালে নেয়। পিকনিকের বাস দুর্ঘর্টনায় হতাহতের খবর নিহতদের গ্রাম গাজীপুরে পৌঁছুলে শোকের ছায়া নেমে আসে। সন্তানের খোঁজে বিদ্যালয়ের সামনে সমবেত হন সকলে। সেখানে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।

স্থানীয়রা জানান, গতকাল শনিবার গাজীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুশিক্ষার্থীদের নিয়ে শিক্ষকরা শিক্ষা সফরের উদ্দেশে মেহেরপুরের মুজিবনগরের উদ্দেশে রওনা হন। দুপুরে বনভোজন শেষে বাসযোগে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে চৌগাছার-মহেশপুর সড়কের কাদবিলা গ্রামের ঝাউতলা নামক স্থানে রাজ মেট্রো-জ- ১১-০০৮০ নম্বরের বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশের পুকুরে পড়ে যায়। নির্মাণাধীন ব্রিজের নিকট সবজি জাতীয় গাছের ডাটা রাখার কারণে চালক হঠাত ব্রেক করেন। গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে রাস্তা পিচ্ছিল থাকায় চালক বাসটি আর নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি। ঘটে দুর্ঘটনা। এতে ঘটনাস্থলে সাত শিশু শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়। নিহতরা হলো- আঁখি (৭), সাব্বির (৮), শান্ত (৬), মিথিলা (৭), শাহানারা (১০), আকিল (৭) ও সুরাইয়া (১০)। এছাড়া এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ৪৭জন। নিহত শিক্ষার্থীরা সবাই শার্শা উপজেলার গাজীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। যশোর মেডিকেল কলেজ ‍হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৯ জনের মধ্যে গুরুতর আহত শিক্ষার্থী ঐশী (৭), মালেক (৯), হাজরা (১২), শিলা (১২), ইয়ানুর (৮), সাব্বির (৭) এবং বিদ্যালয়ের শিক্ষক ফাতেমা খাতুনের আত্মীয় লাভলী ইয়াসমিনকে (৪৫) উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোর সিএমএ‌ইচ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হচ্ছে। এছাড়াও নিহত সাত শিশু শিক্ষার্থীর লাশ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পুলিশ বলেছে, সন্ধ্যার পর ওই এলাকায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হওয়ায় ব্রিজ তৈরির জন্য রাস্তার ওপর রাখা ডাটা (সবজি বিশেষ) পিচ্ছিল হয়ে ছিলো। পিকনিকের বাসটির চালক হঠাত ব্রেক করলে সেটি পিছলে পুকুরে পড়ে যায়।
ঘটনার পরপরই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ পৃথক শোকবার্তায় শোক জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here