শিক্ষক আহাদ আলীর বিরুদ্ধে আদালতে পুলিশের চার্জশিট

 

চুয়াডাঙ্গা ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলায় ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক আহাদ আলীর বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেয়া হয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই পিয়ার আলী মামলার ২১ দিনের মাথায় আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলাটি বর্তমানে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা শহরের ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছাত্রী গত ২৯ এপ্রিল শিক্ষক আহাদ আলীর কাছে প্রাইভেট পড়তে থানা কাউন্সিল পাড়ায় ভাড়ার বাড়িতে যায়। ওই সময় আহাদ আলী ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। এ ঘটনা জানাজানি হলে বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা ৪ মে ক্লাস বর্জন করে অভিযুক্ত শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করে।

এই ঘটনায় ছাত্রীর ভগ্নিপতি বাদী হয়ে ৪ মে সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন।  মামলা দায়েরের পর ওই দিনই পুলিশ আহাদ আলীকে গ্রেফতার করে। একই সাথে ধর্ষিত স্কুলছাত্রীর মেডিকেল সম্পন্ন করা হয়। এই মামলায় ১২ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে। শিক্ষক আহাদ আলী বর্তমানে চুয়াডাঙ্গা জেলা কারাগারে রয়েছেন। মামলার ২১ দিনের মাথায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই পিয়ার আলী গত ২৬ মে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। অভিযুক্ত আহাদ আলী (২৮) চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নেহালপুর পশ্চিমপাড়ার খোয়াজ মণ্ডলের ছেলে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *