শামীমকে হত্যাচেষ্টাসিসি ক্যামেরার ফুটেজে তিন অস্ত্রধারী

 

স্টাফ রিপোর্টার:আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেকছাত্রলীগ নেতা এনামুল হক শামীমকে হত্যাচেষ্টাকারী তিন দুর্বৃত্তের ছবিপেয়েছে পুলিশ। ঘটনার পর পালিয়ে যাওয়ার সময় ধানমন্ডি ৯/এ সড়কের ইবনেসিনাহাসপাতালের সিসিটিভি ক্যামেরায় তিন জনের পালিয়ে যাওয়ার দৃশ্য পাওয়া গেছে।ঘটনার দিনই পুলিশ সেই ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। ওই ফুটেজ থেকে অস্ত্রধারীতিন তরুণকে শনাক্তের চেষ্টা করা হচ্ছে। অপরদিকে গতকাল পর্যন্ত এদের কাউকেগ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত এ ঘটনায় থানায় মামলাও হয়নি। এমনকি শামীমকে হত্যা চেষ্টার কারণও খুঁজে পাচ্ছে না কেউ। খোদ এনামুলহক শামীমও তাকে হত্যাচেষ্টা করতে পারে এমন কারো নাম বা সংঘবদ্ধ গ্রুপেরকথা বলতে পারছেন না। এখনও তিনি সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের ইনসেনটিভ কেয়ারইউনিটে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশেরউপকমিশনার (ডিসি-দক্ষিণ) কৃষ্ণপদ রায় বলেন, ঘটনাটি গুরুত্ব দিয়ে অনুসন্ধানকরা হচ্ছে। কারা এবং কি কারণে এনামুল হক শামীমকে হত্যার চেষ্টা করেছিলো তাখোঁজা হচ্ছে। কয়েকটি বিষয় সামনে রেখে পুলিশ কাজ করছে। তিনি বলেন, ভিডিওফুটেজ দেখে অস্ত্রধারীদের শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

পুলিশ ও স্বজনদের সাথেকথা বলে জানা গেছে, তারা ধারণা করতে পারছেন না কারা এনামুল হক শামীমকেহত্যার চেষ্টা করতে পারে। স্বজনরা পুলিশের কাছে শামীমের সাম্প্রতিক সময়েরকর্মকাণ্ড বিস্তারিত জানিয়েছেন। শামীম বর্তমানে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালেরআইসিইউতে চিকিৎসাধীন। একমাত্র স্ত্রী ছাড়া সেখানে কেউ প্রবেশ করতে পারছেনা। চিকিৎসকরা তার সাথে কাউকে কথা বলতে দিচ্ছেন না। ঘটনার পরপরই পুলিশ তারসাথে কথা বলে যতোটুকু তথ্য সংগ্রহ করেছে তার ওপর ভিত্তি করেই অনুসন্ধানকরছে। বিশেষ করে রাজনৈতিক ও ব্যবসায়ীক বিষয়গুলো গুরুত্ব দিয়ে পর্যবেক্ষণকরা হচ্ছে। এদিকে পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ভিডিও ফুটেজ দেখে অস্ত্রধারীতিন তরুণকে শনাক্তের চেষ্টা চলছে। তারা মোটামুটি নিশ্চিত হয়েছেন, অস্ত্রধারী এ তিন তরুণ ভাড়াটে কিলার। এ কিলার গ্রুপকে মোটামুটি শনাক্তওকরা হয়েছে। তবে ধারণা করা হচ্ছে, নেপথ্যে থেকে কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠীশামীমকে হত্যার পরিকল্পনা করেছিলো। এজন্য আগে হামলাকারীদের গ্রেফতার করেপরে নেপথ্য নায়কের সন্ধান করা হবে। ডিবির সহকারী কমিশনার (এসি) নূর-এ আলমজানান, ভিডিও ফুটেজ দেখে কিলারদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। খুব শিগগিরইতাদের গ্রেফতার সম্ভব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। ডিবি সূত্র জানায়, ইবনেসিনা হাসপাতালের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণের গেটের ওপরে লাগানো সিসি ক্যামেরায়অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের দেখা গেছে। ভিডিও দৃশ্যে দেখা যায়, মোটরসাইকেলেরতিন আরোহীর মাঝখানে বসা তরুণ অস্ত্র উঁচিয়ে চলে যাচ্ছে। মোটরসাইকেলটি খয়েরিরঙের। মোটরসাইকেল আরোহী তিন জনই অল্প বয়সী। ঘটনার পর প্রত্যক্ষদর্শীরাওবলেছিলেন, অস্ত্রধারীদের বয়স ২২-২৬ বছরের মধ্যে হবে। কয়েক সেকেন্ডের এভিডিও দৃশ্যে অস্ত্রধারীদের পরনে জিন্সের প্যান্ট ও হাফ হাতা শার্ট দেখাগেছে।
এনামুল হক শামীমের স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা যায়, শামীমস্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি ছাড়াও আরও দুটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথেসম্পৃক্ত। এগুলো হলো গ্রিন ইউনিভার্সিটি ও সদ্য চালু হওয়া বরেন্দ্রইউনিভার্সিটি। ইউনিভার্সিটি কেন্দ্রিক কোনো দ্বন্দ্ব কারও সাথে ছিলো কিনাতাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। শামীমের ঘনিষ্ঠ এক সূত্র জানায়, একটি বড় ব্যবসায়িকগ্রুপের সাথে এক সময় ঘনিষ্ঠতা ছিলো শামীমের। কিন্তু আওয়ামী লীগ নেতা আবদুররাজ্জাক মারা যাবার পর তার আসনে প্রার্থী হওয়া নিয়ে ওই গ্রুপটির সাথে তারবিরোধ বাধে। ওই গ্রুপের মালিকানাধীন একটি ব্যাংকের পরিচালক থাকলেও ওই ঘটনারপর ব্যাংক ছেড়ে আসেন শামীম। শামীম ঘনিষ্ঠ ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির একনেতা বলেন, ওনার সাথে কারও সাথে দ্বন্দ্ব  আছে, এমন কোনো কথা তিনি কখনও  আলোচনা করেননি। তাই কারা তাকে হত্যা চেষ্টা করতে পারে তা অনুমান করতে পারছেনা। এনামুল হক শামীমের চাচাত ভাই একরামুল হক সুজন জানান, তার ভাইয়ের কোনোশত্রু আছে বলে তারা জানেন না। শামীম বেশির ভাগ সময় একাই চলাফেরা করতেন।এমনকি রাতের বেলা তিনি ধানমন্ডি লেকে একাই হাঁটতে যেতেন। যদি শত্রুতারবিষয়টি আগে থেকে আঁচ করতে পারতেন তাহলে তো একা চলাফেরা করতেন না। পুলিশেররমনা জোনের উপকমিশনার মারুফ হোসেন সর্দার বলেন, কয়েকটি বিষয় সামনে রেখেতদন্ত চলছে। এখনও বলার মতো কিছু পাওয়া যায়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *