রোনালদোকে অতীত করে দেওয়া ক্লোসারও বিদায়

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ফিলিপ লাম, স্টিভেন জেরার্ড,জাভি হার্নান্দেজআন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে একেএকে বিদায় নিচ্ছেন বিরল প্রজাতির সব ফুটবলার। এ তালিকায় যোগ হলোমিরোস্লাভ ক্লোসার নামও। জার্মানির শাদা জার্সিতে আর দেখা যাবে নাদুর্দান্ত হেডে সব গোল আর গোলের পর উপভোগ্য সেই ডিগবাজি!৩৬ বছর বয়সীজার্মান ফরোয়ার্ড বললেন, ব্রাজিলে বিশ্বকাপ জেতাটা ছিলো শৈশবের স্বপ্নসত্যি হওয়া। জার্মান ফুটবলের এ বিরাট সাফল্যে অবদান রাখতে পেরে আমি খুশি ওগর্বিত। জাতীয় দলের অধ্যায় সমাপ্তির জন্য এর চেয়ে ভালো মুহূর্ত আর হতে পারেনা।পোলিশবংশোদ্ভূত এ জার্মান স্ট্রাইকার খেলেছেন ২০০২,২০০৬,২০১০ ও ২০১৪বিশ্বকাপ। রোনালদোকে টপকে ১৬ গোল নিয়ে এখন এককভাবেই বিশ্বকাপের সর্বোচ্চগোলদাতা। এরপরও রোনালদোকে সেরা খেলোয়াড় মেনেছেন ক্লোসা। জার্মানির পক্ষেলোথার ম্যাথাউসের পর সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলা ক্লোসার আন্তর্জাতিক অভিষেক ২৪মার্চ ২০০১ সালে,আলবেনিয়ার বিপক্ষে। খেলেছেন ১৩৭ ম্যাচ। জার্ড মুলারেররেকর্ড ভেঙে জার্মানির হয়ে সর্বোচ্চ ৭১ গোল করেছেন।নিজের ব্যক্তিগতরেকর্ড নিয়ে জার্মান ফরোয়ার্ড বললেন, ব্যক্তিগতভাবে লক্ষ্য অর্জন করেছি (বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোল)। যারা আমাকে কাছ থেকে চেনেন, তারা জানেন এটিরজন্য কতোটা মুখিয়ে ছিলাম। আমি একজন স্ট্রাইকার। আমার কাজই গোল করা। ফলে এটিকখনো ভাবিয়ে তোলেনি।ব্রাজিলে গিয়ে রোনালদোর রেকর্ড ভেঙেছেন।সেমিফাইনালে ব্রাজিলকে বিধ্বস্ত করে (ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে)বিশ্বকাপ জিতেছেন। ২০০২ বিশ্বকাপে ব্রাজিলের বিপক্ষে হারের কী নির্মমপ্রতিশোধ! একজন ফুটবলারের আর কী চাওয়ার থাকতে পারে! ক্লোসা ঠিকই বলেছেন, বিদায়ের জন্য এর চেয়ে ভালো মুহূর্ত আর কিছু হতে পারে না।

Leave a comment

Your email address will not be published.