রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অভিযান : রাবিতে হামলায় ব্যবহৃত পিস্তলসহ একজন আটক

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলায় ছাত্রলীগ নেতাদের ব্যবহৃত একটি পিস্তল ও গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় এক যুবককেও আটক করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে তরিকুল ইসলাম তরু (২২) নামে ওই যুবককে আটক করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। আটক তরিকুল পুলিশর কাছে স্বীকার করেছে, উদ্ধার হওয়া পিস্তলটি রাবি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকারীদের একজনের কাছ থেকে পাওয়া।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুর রহমান ভূঁইয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উদ্ধারকৃত অস্ত্রটি রাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার সময় ব্যবহার করা হয়েছিলো বলে স্বীকার করে। আটক তরিকুল আরো জানিয়েছে, অস্ত্র ও গুলিগুলো তার একজন ঘনিষ্ঠ বড় ভাইয়ের।

ওসি আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার ঘটনায় প্রকাশিত ছবির সাথে মিলিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। এটি ২ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্রগুলোর একটি। তরিকুলের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে এই পিস্তল ও গুলির প্রকৃত মালিকের সন্ধান শুরু হয়েছে। এছাড়া এ বিষয়ে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন বলে জানান ওসি।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ নগরীর মহিষবাথান এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় ওই এলাকায় রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় তরিকুলকে আটক করা হয়।

পরে তার দেহ তল্লাশি করে একটি বিদেশি পিস্তল, ৬ রাউন্ড গুলি ও দুটি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়। আটক তরিকুল ইসলাম নগরীর বালিয়াপুকুর এলাকার মুন্না শেখের ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত।

উল্লেখ্য, বর্ধিত ফি ও সান্ধ্যকালীন মাস্টার্স কোর্স বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর গত ২ ফেব্রুয়ারি হামলা চালায় ছাত্রলীগ। ওইদিন অন্তত ৬ ছাত্রলীগ নেতার হাতে পিস্তল দেখা গেছে।

এ নিয়ে দেশজুড়ে সমালোচনার মুখে পড়ে ক্ষমতাসীন দলের এ অঙ্গ সংগঠন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো অস্ত্রধারী গ্রেফতার হয়নি। ঘটনার পরদিন থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.