রাজশাহীতে পদ্মায় নিখোঁজ দামুড়হুদা দশমীর মহাসিন দর্জির ছেলে মৃন্ময়ের এখনও মেলেনি হদিস : পরিবারে শোকের মাতম

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: রাজশাহী শিমলা এলাকায় পদ্মায় নৌকা থেকে পড়ে পানিতে ডুবে নিখোঁজ দামুড়হুদা দশমীপাড়ার মহাসিন দর্জির ছেলে মৃন্ময়ের (১৮) এখনও পর্যন্ত হদিস মেলেনি। পানিতে ডুবে নিখোঁজের ২য় দিনেও রাজশাহী সদর ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরিদল গতকাল সোমবার দিনভর উদ্ধার অভিযান চালালেও শেষমেশ তার হদিস মেলাতে পারেনি। আজ মঙ্গলবার ৩য় দিনেও উদ্ধার অভিযান চালানো হবে বলে জানিয়েছেন রাজশাহী সদর ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার ফরহাদ হোসেন। এ দিকে কলেজছাত্র মৃন্ময়ের নিখোঁজের ঘটনায় পরিবারে নেমে এসেছে শোকের মাতম। পদ্মার ঢেউ যেন আছড়ে পড়ছে স্বজনদের মাঝে। তার ভাগ্যে কী ঘটেছে এবং কিভাবে ঘটেছে তা এখনও অনেকটাই অস্পষ্ট।
উল্লেখ্য, রাজশাহী মডেলস্কুল অ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র দামুড়হুদা দশমীপাড়ার মহাসিন দর্জির ছেলে আসিফ আল মাসুদ মৃন্ময়সহ ৬ শিক্ষার্থী গত রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পদ্মা নদীতে বেড়াতে যায়। এদের মধ্যে ৩জন ছাত্র ও ৩জন ছাত্রী ছিলো। তারা একটি নৌকা ভাড়া নিয়ে রাজশাহীর শিমলা অঞ্চলে পদ্মা নদীর মধ্যচরের বাঁধ এলাকায় ঘুরছিলো। এরই একপর্যায়ে সে নৌকা থেকে পড়ে পানিতে ডুবে যায়। খবর পেয়ে রাজশাহী সদর ফায়ার সার্ভিসের সাত সদস্যের একটি দল দুপুর থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোঁজাখুঁজি করলেও তার হদিস মেলাতে পারেনি। গতকাল সোমবার সকাল থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরীদল পুনরায় উদ্ধার অভিযান শুরু করে। দিনভর অভিযান চালালেও তার হদিস মেলেনি। নগরীর মতিহার থানার ওসি শাহাদাৎ হোসেন বলেন, তারা নৌকায় ঘোরাঘুরির একপর্যায়ে নৌকা নিয়ে চর এলাকা থেকে অনেকটা দূরুত্বে চলে যায়। মৃন্ময় নৌকার মাথায় দাঁড়িয়ে সেলফি তুলতে গিয়ে পা ফঁসকে নৌকা থেকে পড়ে ডুবে যায়। সে নগরের একটি ছাত্রবাসে থেকে লেখাপড়া করতো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *