রাজধানীর মিরপুরে স্ত্রীর হাতে পুলিশের এএসআই খুন

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর শাহ আলী থানার এক পুলিশ কর্মকর্তাকে হত্যা করা হয়েছে। তার নাম হুমায়ুন কবির (৪০)। তিনি শাহ আলী থানার এএসআই। গত শনিবার গভীররাতে শয়নকক্ষ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় তার স্ত্রী রহিমা সুলতানা রুমিকে (২৮) আটক করা হয়েছে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রহিমা সুলতানা ইনজেকশন দিয়ে স্বামী হুমায়ুন কবিরকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। এ হত্যাকাণ্ডে রহিমা সুলতানাসহ তিনজন অংশনিয়েছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছে পুলিশ। মিরপুর থানার ওসি (তদন্ত) মইনুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে হুমায়ুন কবির ও রহিমা সুলতানা দম্পতির মধ্যে কলহ চলছিলো। এ কারণেই হয়তো পূর্বপরিকল্পিতভাবে হুমায়ুন কবিরকে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের ভাই আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে রহিমা সুলতানাসহ তিনজনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ জানায়, এএসআই হুমায়ুন কবির প্রায় এক বছর ধরে শাহ আলী থানায় কর্মরত আছেন।
মিরপুর পূর্ব মণিপুরের ১০৫০/৩ নম্বর বাসার ২য় তলায় স্ত্রী রহিমা সুলতানা রুমি ও ২ বছরের সন্তান ইসমানকে নিয়ে থাকতেন হুমায়ুন কবির। খবর পেয়ে শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ওই বাসায় গিয়ে হুমায়ুনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মিরপুর থানার এসআই আহসান হাবিব সুরতহাল রিপোর্ট করেন। তিনি বলেন, একটি কক্ষের খাটের পাশে তার মৃতদেহ পড়েছিলো। পাশের কক্ষে ছিলেন রহিমা সুলতানা।

Leave a comment

Your email address will not be published.