যেসব প্রণ্যের দাম কমছে

 

বাজেটে শুল্কহার হ্রাস ও কর রেয়াতির প্রস্তাব করায় বেশকিছু পণ্য ও যন্ত্রপাতির দাম কমতে পারে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, হাইব্রিড গাড়ি, মোটরসাইকেল, সিমেন্ট, বোল্ডার পাথর ও ভাঙা পাথর, ওয়াইফাই, সাইবার সিকিউরিটি যন্ত্রাংশ, পেট্রোলিয়াম জেলি, কয়লা, অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র, ফ্রিজ, এলইডি বাল্ব, কর্নফ্লাওয়ার, শিশুখাদ্য সাগু, সয়াকেক ইত্যাদি। দাম কমতে পারে মোটরসাইকেল উৎপাদনের যন্ত্রাংশ আমদানি, নির্মাণ খাতে বোলডার স্টোন, ক্রাসড স্টোন, বিলেট, এ্যাঙ্গেল, বিটুমিন কয়লা, ফ্লাই এ্যাশ ও লুব্রিকেন্ট অয়েলের। পেট্রোলিয়াম জেলি, প্যারাফিন ওয়াক্স, গ্লু, গাম রেজিন, পলিসল্ট, রিফ্যাক্টরি সিমেন্ট, ইউরিয়া রেজিন, এ্যাডহেসিভ টেপ, সিম ও স্মার্ট কার্ডের পিভিসি শিট ও এলপিজি সিলিন্ডারের দাম কমতে পারে। ব্যয় কমতে পারে সাইবার সিকিউরিটি যন্ত্রাংশ, আনপ্রিন্টেড পিভিসি, বায়োগ্যাস ডাইজেস্টার, ফাইবার গ্লাস, ওষুধ শিল্পে ব্যবহৃত ফ্রিজ ও চিত্তবিনোদনের রাইডে। কর রেয়াত সুবিধা দেয়ায় দাম কমতে পারে অগ্নিনির্বাপক যন্ত্রপাতি, দরজা, প্রি-ফেব্রিকেটেড বিল্ডিং উপকরণের যন্ত্রপাতি, স্প্রিংকলার, ভিডিও কনফারেন্স ডিভাইস, এলসিডি ও এলইডি প্যানেল, এলইডি ল্যাম্প-বাল্ব-টিউব, জরুরি লাইট, কৃষি যন্ত্রাংশ তৈরিতে টিউব, পাইপ, স্ক্র, নাট-বল্টু, বল-বেয়ারিংসহ যন্ত্রাংশের পার্ট, কাঁচা রাবার, রাবার প্রসেস ওয়েল, সিকেডি মোটরসাইকেলের শুল্ক ও আমদানি করা পোল্ট্রির খাবারের। এছাড়া স্যানিটারি ন্যাপকিন ও তৈরি পোশাক শিল্পের কাটিং টেবিলে মূলধনী যন্ত্রপাতির রেয়াতি সুবিধা প্রদানেরও প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। কমতে পারে সিম ও স্মার্ট কার্ডের স্ক্র্যাপের প্রলেপ। বাজেটে হাইব্রিড গাড়ি আমদানির অনুমতি পাচ্ছে পুরনো গাড়ি আমদানিকারকরা। এর সাথে হাইব্রিড গাড়ির শুল্ক হার পুনর্বিন্যাস করা হচ্ছে। ফলে হাইব্রিড গাড়ির দাম কমতে পারে।

আমদানি করা সংযোজিত (সিকেডি) মোটরসাইকেলের সম্পূরক শুল্ক ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২০ শতাংশ করা হচ্ছে। এ কারণে আগামীতে মোটরসাইকেলের দাম কমতে পারে। সিমেন্ট শিল্পের কাঁচামাল ফ্লাই এ্যাশের শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হচ্ছে। ফলে সিমেন্টের দাম কমতে পারে। নির্মাণ খাতকে সহায়তা দিতে বাজেটে বোল্ডার পাথর ও ভাঙা পাথর আমদানি শুল্ক কমানো হচ্ছে। এতে পাথরের দাম কমতে পারে। সার্ভার ৱ্যাক আমদানির শুল্ক ১০ থেকে ৫ শতাংশ করা হচ্ছে। এছাড়া ওয়াইফাই, ওয়াইম্যাক্স, একসেস পয়েন্ট এবং ফায়ারওয়াল (সিকিউরিটি হার্ডওয়্যার) আমদানির শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১৫ শতাংশ করা হচ্ছে। এ কারণে এসব পণ্যের দাম কমতে পারে। শীতকালে জনসাধারণের ত্বকের সুরক্ষায় ব্যবহৃত পেট্রোলিয়াম জেলির দাম কমতে পারে। কারণ পেট্রোলিয়াম জেলি তৈরির কাঁচামাল হোয়াইট পেট্রোলিয়াম জেলির আমদানি শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১৫ শতাংশ করা হচ্ছে। এনথ্রাসাইট ও বিটুমিনাস কয়লা দেশীয় অবকাঠামো নির্মাণের ভূমিকা রাখছে। তাই বাজেটে এ দুই প্রকারের কয়লার আমদানি শুল্ক ৫ শতাংশ থেকে প্রত্যাহার করা হচ্ছে। অগ্নিনির্বাপক যন্ত্রের আমদানি শুল্ক কমানো হচ্ছে। তাই আগুন নেভানোর কাজে ব্যবহৃত পণ্যের দাম কমতে পারে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *