যাত্রীবহন করা বাস উল্টে পান ব্যবসায়ী নিহত : আহত ১৫

ঘটনাস্থল থেকে ফিরে গিয়াস উদ্দীন সেতু: চুয়াডাঙ্গা থেকে ঝিনাইদহের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া বাস নগরবাথান বাজার সংলগ্ন ব্রিজের নিকট উল্টে গেছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনায় একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১৫ জন। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ সড়কের নগরবাথান বাজারের নিকট নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যাওয়া বাসের নিহত যাত্রী লিয়াকত আলী (৪৫) একজন পান ব্যবসায়ী। তিনি ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার কানাপুকুরিয়া গ্রামের আব্দুল গফুরের ছেলে।
আহতদের মধ্যে হরিণাকুণ্ডুর কেষ্টপুর গ্রামের রবিউল, কামাল হোসেন, পাপিয়া খাতুন, নাছির উদ্দীন, সরজিত কুমার, মোহর আলী ও সালমা খাতুনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। আহতদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা গুরুতর।
ঝিনাইদহ সদর থানার উপ-পরিদর্শক ইসমাইল হোসেন জানান, ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা সড়কের নগরবাথান বাজারের সামনে ব্রিজের কাছে চুয়াডাঙ্গা থেকে ছেড়ে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস (নাটোর-জ-১১-০০০৪) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে জোরে ধাক্কা খেয়ে খাদে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই শৈলকুপা উপজেলার কানাপুকুরিয়া গ্রামের আব্দুল গফুরের ছেলে লিয়াকত আলী নিহত হন এবং ১৫ জন আহত হন। পুলিশ ও ঝিনাইদহ দমকল বাহিনীর সদস্যরা খবর পেয়ে আহতদের উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে পাঠায়। তবে এক যাত্রী জানান বাসচালক খুব দ্রুতগতিতে বেপরোয়াভাবে বাসটি চালাচ্ছিলেন। এ খবর লেখা পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *