মেহেরপুর পৌর সভার ৭ নং ওয়ার্ডের নির্বাচন বন্ধ ঘোষণা ॥ পুলিশের দুই এসআই সাসপেন্ড

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডের নির্বাচন বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার নির্বাচন চলাকালে বেলা ১০-১০ মিনিটে মেহেরপুর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ১১ নং কেন্দ্রের (পুরুষ) নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেন কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মেহেরপুর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতরের প্রকৌশলী সুব্রত কুমার পাল। ১১ নং কেন্দ্রের ভোট বন্ধ হয়ে যাওয়ার সাথে সাথে ১২ নং কেন্দ্রের (মহিলা) ভোট বন্ধ ঘোষণা করেন প্রিসাইডিং অফিসার মেহেরপুর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক একেএম শাহীন কবির। এ ঘটনার পরে দায়িত্বে অবহেলার জন্য ২জন এস আইকে সাসপেন্ড করা হয়।
কি কারণে কেন ভোট বন্ধ করা হলো তাৎক্ষণিকভাবে তার কোনো উত্তর দেননি প্রিসাইডিং অফিসার। খবর পেয়ে মেহেরপুরের পৌর নির্বাচনের বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর বিশ্বাস ও সতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র আলহাজ মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু ঘটনাস্থলে যান এবং কেন্দ্রে দায়িত্বে নিয়োজিত অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শেখ ফরিদউদ্দিনকে ভোট বন্ধের কারণ জিজ্ঞাসা করেন। এসময় তিনি  প্রার্থীদের জানান- রিটার্নিং অফিসারের সাথে কথা বলে কেন্দ্র দায়িত্বে থাকা প্রিসাইডিং অফিসার প্রকৌশলী সুব্রত কুমার পাল ভোট বন্ধ করেছেন।
নির্বাচনের সতন্ত্রপ্রার্থী বর্তমান মেয়র আলহাজ মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু সাংবাদিকদের জানান, তাৎক্ষণিকভাবে তিনি রির্টানিং অফিসারের সাথে কথা বলেছেন। তিনি জানিয়েছেন রাতের কোনো এক সময় দুষ্কৃতিকারীরা কেন্দ্রের ব্যালট পেপার ও বক্স ছিনতাই করে। সিল মেরে পরে আবারও তা ফেরত দিয়ে গেছে। মতু এঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন সকালে প্রিসাইডিং অফিসার তাদের এঘটনার কথা না জানিয়ে দু ঘণ্টা পরে ভোট বন্ধ করছেন। তবে বারবার চেষ্টা করেও তিনি প্রিসাইডিং অফিসারের সাথে কথা বলতে ব্যর্থ হয়েছে।
নির্বাচনের বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর বিশ্বাস ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন কার স্বার্থে সুষ্ঠু এ নির্বাচন বানচাল করা হয়েছে? কোন কারণে নির্বাচন বন্ধ করা হয়েছে তার সুস্পষ্ট জবাব  পৌরবাসী চায়?
এদিনে ২টি কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাচনে দারিয়ত্ব রত এসআই কার্ত্তিক চন্দ্র পাল ও এসআই ফকরুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
মেহেরপুর পুলিশ সুপার আনিছুর রহমান জানান, ওই দুই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসারদ্বয় রাতে ব্যালটে সিল দেয়ার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন। কেন্দ্রের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যদের দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ উঠেছে। এ কারণে আজ দুপুরে এসআই কার্তিক কুমার পাল ও ফকরুল ইসলামকে নির্বাচনের দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার পূর্বক সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
মেহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনের রির্টার্নিং অফিসারের দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলা নির্বাচন অফিসার রোকনুজ্জামান বলেন, গতরাতে কতিপয় ব্যক্তি ব্যালট ছিনতাই করে সিল প্রদান করে। সকাল ১০টার দিকে দুটি কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসারবৃন্দ এমন লিখিত অভিযোগ করেন। এর প্রেক্ষিতে ভোট গ্রহণ সাময়িক স্থগিত করা হয়েছে। রাতে ব্যালট ছিনতাই হলে সকাল ১০টায় কেন অভিযোগ দিলেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আইনগত প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য এ সময় লেগেছে।
এ ঘটনায় ৭নং ওয়ার্ডবাসীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *