মেহেরপুর পৌর মেয়র হলেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী রিটন

স্থগিত হওয়া দুটি ওয়ার্ডের নির্বাচন সম্পন্ন : বেসরকারি ফল প্রকাশ

 

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান রিটন (নৌকা) ৩ হাজার ৩০৩ ভোটের ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। গতকাল সোমবার মেহেরপুর পৌরসভার স্থগিত ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ২ কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ শেষে বে-সরকারি ওই ফলাফল ঘোষণা করেন জেলা নির্বাচন অফিসার মো. রোকনুজ্জামান।

এদিন মেহেরপুর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ১১ ও ১২ নং কেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। এ দু কেন্দ্রের মোট ভোটার সংখ্যা ছিলো ৪ হাজার ৫৬৫ জন। সকাল থেকে নারী ও পুরুষ ভোটারের উপস্থিতি ছিলো লক্ষ্য করার মতো।

গতকালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান রিটন (নৌকা) ২ হাজার ৫১১ ভোট, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী পৌর বিএনপি’র সভাপতি জাহাঙ্গীর বিশ্বাস (ধানের শীষ) ৫৭৬ ভোট, সতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র আলহাজ মো. মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু (নারিকেল গাছ) ২১ ভোট এবং অপর সতন্ত্র প্রার্থী নিশান সাবের (মোবাইলফোন) ৩ ভোট পেয়েছেন। দু দিনের নির্বাচনে সর্বমোট ১১ হাজার ৭২০ ভোট পেয়ে মাহফুজুর রহমান রিটন (নৌকা) বে-সরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হলেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাহাঙ্গীর বিশ্বাস (ধানের শীষ) ৮ হাজার ৪১৭ ভোট পেয়েছেন। এছাড়া বর্তমান মেয়র  আলহাজ মো. মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু (নারিকেল গাছ) ২ হাজার ৬৫৩ ভোট এবং অপর সতন্ত্র প্রার্থী নিশান সাবের (মোবাইলফোন) মাত্র ৬০ ভোট পেয়েছেন।

গত ২৫ এপ্রিল মেহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেহেরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ১১ ও ১২ নম্বর কেন্দ্রে ব্যালট ছিনতাই ও কেন্দ্র দখল করে সিল মারার অভিযোগে ভোটগ্রহণ স্থগিত করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা রোকুনুজ্জামান। এছাড়াও দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে পুলিশের দুই উপ-পরিদর্শককে (এসআই) সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

মেহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ১৩ ভোট কেন্দ্রের বেসরকারি ফলাফলে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এক হাজার ৩৬৮ ভোটে এগিয়ে ছিলেন। গত ২৫ এপ্রিল নির্বাচন শেষে মোট ১৩ কেন্দ্রের ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, আওয়ামী লীগের প্রার্থী মাহফুজুর রহমান (নৌকা প্রতীক) ৯ হাজার ২০৯ ভোট, বিএনপির প্রার্থী জাহাঙ্গীর বিশ্বাস (ধানের শীষ) ৭ হাজার ৮৪১ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ (নারকেল গাছ) ২ হাজার ৬৩২ ভোট ও আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী নিশান সাবের (মোবাইলফোন) ৫৭ ভোট পেয়েছিলেন।

মেহেরপুর পৌরসভায় মোট ভোটার ৩০ হাজার ৯৬৫। পোল ভোট ২৩ হাজার ৪৪৯। যা মোট ভোটের শতকরা হার ৭৫ দশমিক ৭৩ ভাগ।

এদিকে ৭ নং ওয়ার্ডে নূরুল আশরাফ রাজীব (উটপাখি) সর্বোচ্চ ৯৫০ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. ইলিয়াস হোসেন (গাজর) ৬৬৬ ভোট পেয়েছেন। এছাড়া মো. সেলিম খান (পানির বোতল) ৪২৪ ভোট, মো. নাহিদ হাসান খান (টেবিল ল্যাম্প) ৩০৮ ভোট, মো. মনিরুল ইসলাম (ঢেঁড়স) ২৮৯ ভোট, আরিফ খান (ডালিম) ১৯৯ ভোট, এসএম ফিরোজুর রহমান বিজয় (পাঞ্জাবি) ১২৬ ভোট, মো. হাবিবুর রহমান সোনা (ব্রিজ) ৭২ ভোট ও মো. দুখু মিয়া (ব্লাক বোর্ড) ৪২ ভোট পেয়েছেন।

এছাড়া গতকাল সোমবার ৭ নং ওয়ার্ডে এক হাজার ২৪০ ভোট পেয়ে সর্বমোট ৩ হাজার ৮২৫ ভোট নিয়ে সংরক্ষিত ৩ আসনের কাউন্সিলর হলেন হামিদা (আনারস)। এদিন তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী মোছা. রোকসানা খাতুন (অটোরিকশা) এক হাজার ৬১১ ভোট পান। গত ২৫ এপ্রিল তার প্রাপ্ত ভোট ছিলো এক হাজার ১৪৮ ভোট।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *