মেহেরপুর নুরপুরে প্রতিপক্ষের বোমা হামলা : মনো ডাকাত নিহত

মেহেরপুর অফিস: প্রতিপক্ষের বোমা হামলায় মেহেরপুর জেলা সদরের চকশ্যামনগর গ্রামের মনোরুদ্দীন ওরফে মনো (৪২) নিহত হয়েছে। গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে নুরপুর মোড়ে বোমা হামলায় গুরুতর আহত হলে তাকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ৯টার দিকে সে মারা যায়। মনোরুদ্দিন মনো এলাকায় মনো ডাকাত হিসেবে পরিচিত। তার মৃত্যুতে অনেকেই স্বস্তি প্রকাশ করেছে।

স্থানীয় ও পুলিশসূত্রে জানা গেছে, মনোরুদ্দীনকে মেহেরপুর সদর উপজেলার পিরোজপুর গ্রাম থেকে সন্ধ্যার দিকে তাড়া করে প্রতিপক্ষের লোকজন। এক পর্যায়ে নুরপুর মোড়ে পৌঁছুলে মনোরুদ্দীনের ওপর কয়েকটি বোমা নিক্ষেপ ও গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায় প্রতিপক্ষের কয়েকজন। বোমার আঘাতে গুরুতর জখম হয় মনোরুদ্দীন। খবর পেয়ে মনো ডাকাতকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয় পুলিশ। সেখানে পুলিশ প্রহরায় তার দেহে অপারেশন চালানো হয়। পরে তাকে বেডে নিলে সে মারা যায়।

পুলিশ বলেছে, মেহেরপুর সদর উপজেলার আমদহ ইউনিয়নের চকশ্যামনগর গ্রামের মুলক চাঁদের ছেলে মনোরুদ্দীন এলাকার চিহ্নিত ডাকাত। সে সম্প্রতি মুজিবনগর উপজেলার মহাজনপুর ইউনিয়নের কোমরপুর গ্রামের আজিবরের মেয়েকে বিয়ে করে বসবাস করতো। এছাড়াও রয়েছে তার ৩/৪টি স্ত্রী। ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাত্র ২ দিন আগে সে মুজিবনগর উপজেলার গোপালপুরের একটি বাড়িতে বোমা হামলা চালায়। ওই সময় স্থানীয় লোকজন তাকে এলাকা ত্যাগ করতে তার শ্বশুর আজিবরকে হুঁশিয়ার করে দেয়। এছাড়া ওই এলাকায় অবস্থানকালে সে ওই এলাকায় চুরি-ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত ছিলো বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। গতকাল তার মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে সদর উপজেলার পিরোজপুর, নূরপুর, সোনাপুর, কাঁঠালপোতা, বলিয়ারপুর, মুজিবনগর উপজেলার কোমরপুর, গোপালপুরসহ বিভিন্ন গ্রামের মানুষ স্বস্তি প্রকাশ করে।

মেহেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আতিয়ার রহমান জানিয়েছেন, মনোরুদ্দীনের নামে সদর ও মুজিবনগর থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্ত শেষে লাশ স্বজনদের হাতে তুলে দেয়া হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *