মেহেরপুর আমঝুপির কুদ্দুস হত্যার দোষ স্বীকার: নিহত কুদ্দুসের স্ত্রী বকুল জেলহাজতে

 

আমঝুপি প্রতিনিধি: মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি গ্রামের মুদিব্যবসায়ী আব্দুল কুদ্দুস হত্যামামলার আসামি শফিকুল হত্যার দায় স্বীকার করেছে। রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যার কথা স্বীকার করে। একই সাথে কুদ্দুসের স্ত্রী বকুলের সাথে তার পরকীয়ার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে শফিকুল পুলিশ রিমান্ডে জানায়। এদিকে শফিকুলের স্বীকারোক্তিতে পুলিশ গতকাল সোমবার সকালে আমঝুপি থেকে কুদ্দুসের স্ত্রী বকুলকে আটক করে। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে প্রেরণ করেছে বলে পুলিশ জানায়। অপরদিকে শফিকুলেরর ৪ দিনের রিমান্ড শেষ হলেও মঙ্গলবার আবারও আদালতে তার রিমান্ড আবেদন জানানো হতে পারে বলে জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই দুলু।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপির মুদিব্যবসায়ী আব্দুল কুদ্দুসকে কুপিয়ে খুন করে একটি ডোবায় ফেলে খড়কুটো দিয়ে ঢেকে রাখে সন্ত্রাসীরা। ওই দিন রাতে হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে একই গ্রামের শফিকুলকে আটক করে পুলিশ। ঘটনার দু দিন পরে সদর উপজেলার কোলার একটি বাড়ি থেকে শফিকুলের রক্তমাখা সাইকলে উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর থেকে শফিকুলের ওপর সন্দেহ বেড়ে যায় পুলিশের। গত শনিবার শফিকুলকে ৪ দিনে রিমান্ড নেয় পুলিশ। রিমান্ডে সে হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে এবং হত্যার সাথে আমঝুপি গ্রামের ঈমান আলী ও তার ছেলে মফিজ জড়িত বলে পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ তাদের আটক করে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.