মেহেরপুরে বৃদ্ধার অগ্নিদগ্ধ লাশ উদ্ধার

 

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর শহরের হোটেলবাজার এলাকার একটি বাড়ি থেকে অগ্নিদগ্ধ এক বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ৮টার দিকে ঘরের দরজা ভেঙে ভেতর থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। হতভাগ্য অগ্নিদগ্ধ অসীমা ভট্টাচার্য ওরফে টিকু (৮২) একাই দোতলার একটি কক্ষে থাকতেন।

জানা গেছে, মেহেরপুর শহরের হোটেল বাজার শহীদ আরজ সড়কে একটি দোতলা বাড়ির দোতলার একটি কক্ষে থাকতেন বৃদ্ধা অসীমা ভট্টাচার্য। সকাল ৮টা নাগাদ তিনি দরজা খুলে ঘরের বাইরে বের হয়ে না আসায় এবং প্রতিবেশীরা তার ঘর থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখে ঘরের দরজা ভেঙে তার অগ্নিদগ্ধ লাশ উদ্ধার করেন। লাশ উদ্ধার হলে প্রতিবেশীদের মধ্যে মিশ্রু প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। অনেকে বলেছে, মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে ওই আগুন লেপ-কাঁথায় ছড়িয়ে পড়লে বৃদ্ধা লেপ-কাঁথার মধ্যেই অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গিয়ে থাকতে পারে। খবর পেয়ে মেহেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুস্তাফিজুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এদিকে মেহেরপুর সদর থানার এসআই ওয়ালিউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, মশার কয়েল অথবা বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে ওই বৃদ্ধার মৃত্যু হতে পারে। স্বজনদের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ স্বজনদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। তবে থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। পরে প্রশাসনের আদেশে লাশের সৎকার করা হয়েছে।

নিহত বৃদ্ধার জামাই ডা. অশোক নারায়ণ ভট্টাচার্য জানান, এ মৃত্যুর ব্যাপারে তাদের কারো প্রতি কোনো সন্দেহ বা অভিযোগ নেই। অসীমা ভট্টাচার্য ওরফে টিকু ছিলেন মেহেরপুর হোটেলবাজার এলাকার শহীদ আরোজ সড়কের স্বর্গীয় উপেন ভট্টাচার্যের মেয়ে ও স্বর্গীয় আনন্দ মাস্টারের বোন।

Leave a comment

Your email address will not be published.