মেহেরপুরে ঘাতক ট্রাক কেড়ে নিলো ভ্যানচালকের প্রাণ : স্ত্রী ও মেয়ে আহত

মেহেরপুর অফিস: হাসপাতালে রোগী দেখে বাড়ি ফেরার পথে নিজেই চলে গেলেন না ফেরার দেশে। এক ঘাতক ট্রাক কেড়ে নিলো ভ্যানচালক তোয়াজ আলীর (৩৭) প্রাণ। যে হাসপাতালে রোগীকে সাহস দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন সেই হাসপাতালের লাশ ঘরে ঠাঁই হলো তার। ট্রাকের ধাক্কায় তার স্ত্রী নাছরিন খাতুন (৩৩) ও মেয়ে সুরাইয়া খাতুন (৭) গুরুতর আহত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের সামনের সড়কে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি গ্রামের ভ্যানচালক তোয়াজ আলী তার স্ত্রী নাছরিন খাতুন ও মেয়ে সুরাইয়া খাতুনকে সাথে নিয়ে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি এক আত্মীয়কে দেখার জন্য আসেন। রোগী দেখা শেষে ভ্যান চালিয়ে বাড়ি ফেরার সময় জেনারেল হাসপাতালের সামনের সড়কে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি দ্রুত গতির ট্রাক ধাক্কা দেয়। এতে ভ্যান থেকে তিনজনই সড়কে ছিটকে পড়ে গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার মেহেদী হাসান ভ্যানচালক তোয়াজ আলীকে মৃত ঘোষণা করেন। তার স্ত্রীর অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানান ডা. মেহেদী হাসান। এদিকে ভ্যানটিকে ধাক্কা দিয়ে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পার্শ্ববর্তী খাদে ট্রাক ফেলে পালিয়ে যায়। ট্রাকটি আটক এবং নিহতের মরদেহ পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে বলে জানান সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ আতিয়ার রহমান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *