মেহেরপুরের পল্লিতে সোর্স সাথে নিয়ে শাদা পোশাকে মাদকবিরোধী অভিযান :ডাকাত সন্দেহে গ্রামবাসী প্রতিরোধ

জনতার হাতে ৩ র‌্যাব সদস্যসহ আহত ৬ : মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ

 

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর সদর উপজেলার রাজনগরে সোর্স সাথে নিয়ে শাদা পোশাকে র‌্যাব মাদকবিরোধী অভিযান চালানোর সময় প্রতিরোধের মুখে পড়েছে। এ সময় জনতার হাতে র‌্যাবের তিন সদস্যসহ আহত হয়েছে ৬ জন। ঘটনাটি ঘটে গতকাল সন্ধ্যায়।

ডাকাত সন্দেহে গ্রামবাসী প্রতিরোধ গড়ে তুললে র‌্যাব সদস্য ও তাদের সোর্সের সাথে সংঘর্ষ হয়।  এক পর্যায়ে জনগণ র‌্যাব সদস্যসহ ৬ জনকে মারপিট করে। আগুন ধরিয়ে দেয় তাদের মোটরসাইকেলে। পরে র‌্যাব সদস্যরা অভিযোগ করে বলেছেন, এ সময় আগ্নেয়াস্ত্রও ছিনিয়ে নেয় গ্রামের কয়েকজন। পরে পুলিশ অস্ত্র দুটি রাস্তা থেকে উদ্ধার করে।

আহত র‌্যাবের ৩ সদস্যসহ ৬ জনকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। আহতরা হলেন র‌্যাবের ডিএডি জাকির হোসেন, এএসআই শরিফুল, সৈনিক লাভলু এবং র‌্যাবের সোর্স সুন্নত, বিপ্লব ও মিনারুল। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিপুল পরিমাণ পুলিশ ও বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকায় চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আহত র‌্যাবের সোর্স  বিপ্লব ও মিনারুল জানান, র‌্যাবের ডিএডি জাকির হোসেনের নেতৃত্বে এএসআই শরিফুলসহ র‌্যাবের ৩ জন এবং তাদের ৩ সোর্স মিলে মোট ৬ জন গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে মেহেরপুর সদর উপজেলার রাজনগর শেখপাড়ায় হাশেম মণ্ডলের ছেলে বিপুল ড্রাইভারের বাড়িতে অভিযানের উদ্দেশে যায়। এ সময় মাদকব্যবসায়ী বিপুলকে মাদকসহ গ্রেফতার করে আনার সময় গ্রামবাসী তাদের সন্ত্রাসী মনে করে প্রতিরোধ গড়ে তুলে মারপিট শুরু করে। এ সময় তারা র‌্যাবের ব্যবহৃত ৩টি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করে এবং র‌্যাবের ব্যবহৃত দুটি পিস্তল লুট করে নেয়। পরে অস্ত্র দুটি পুলিশ উদ্ধার করে বলে জানা গেছে। পরে খবর পেয়ে র‌্যাবের অপর একটি দল একটি তালাবদ্ধ ঘর থেকে উদ্ধার করে মেহেরপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ সময় র‌্যাব কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি চালায়। এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *